সকাল ৮:১২, বুধবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ সিলেট

মৌলভীবাজারে নির্মাণাধীন ভবনে কাজ করার সময় বিদ্যুস্পৃষ্ট হয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। কুলাউড়া থানার ওসি শামীম মোছা জানান, শমশেরনগরের সবুজবাগ এলাকায় সোমবার সকাল ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন – কুলাউড়া উপজেলার জয়চণ্ডী ইউনিয়নের পাঁচপীর জালাই গ্রামের মকবুল আলীর ছেলে সোয়াইব আলী (২২) ও আব্দুল মন্নানের ছেলে মিছির আলী (১৫)।

তারা ওই এলাকায় দুবাই প্রবাসী নজরুল হকের নির্মাণাধীণ চারতালা ভবনের বাইরের দেয়ালে পলেস্তারা করার জন্য কাঁচা বাঁশ দিয়ে মাচা বানাচ্ছিলেন।

স্থানীয়রা বলছে, বাঁশগুলো কাঁচা থাকায় বিদ্যুতের তারে লেগে প্রথমে এক শ্রমিক আটকা পড়েন। তাকে বাঁচাতে গিয়ে অন্যজনও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এ সময় অন্যরা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তবে হাসপাতালে নেওয়ার আগেই তাদের মৃত্যু বলে সিভিল সার্জন সত্যকাম চক্রবর্তী জানিয়েছেন।

বাড়ির মালিক নজরুল হকের বড় ভাই আজিজুল হক বলেন, শ্রমিকদের অসাবধানতাবশত এ দুর্ঘটনা ঘটে। তার পরও নিহতদের পরিবারকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেবেন তারা।

ওসি শামীম মোছা এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছ্নে।

 

সিলেটে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেটের গোয়াইনঘাটে গলায় ফাঁস দিয়ে এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। নিহত ছাত্রী উপজেলার তোয়াকুল ইউনিয়নের শাহপুর গ্রামের সুরুজ আলীর মেয়ে জাকিয়া জাহান (১৬) ও গোয়াইনঘাট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত জাকিয়া উপজেলা সদরে তার খালার বাসায় থেকে লেখা পড়া করে আসছিল। শিক্ষক দম্পতি খালা ও খালুর অবর্তমানে  বুধবার দুপুরে বসত ঘরের তীরের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে জাকিয়া আত্মহত্যা করে।

খবর পেয়ে গোয়াইনঘাট থানার ওসি (তদন্ত) হিল্লোল রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশের প্রাথমিক সুরতাহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।
এ ব্যাপারে গোয়াইনঘাট থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সিলেটে অটোরিকশার ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

সিলেটে সিএনজি চালিত অটোরিকশার ধাক্কায় হাবিবুর রহমান (৫৫) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (০৬ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে সিলেট সদর উপজেলার নাজিরবাজার-চিন্তামইন সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত হাবিবুর রহমানের বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার পুরানবাজার এলাকায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাতে মোটরসাইকেলে করে নাজিরবাজার থেকে ওসমানীনগরের খাইগদর গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে যাচ্ছিলেন হাবিবুর। পথে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি আটোরিকশা মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই হাবিবুর মারা যান। এসময় আহত হন মোটরসাইকেলে থাকা আরো একজন।

ওসমানীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল্লাহ  জানান, খবর পেয়ে পুলিশ হতাহতদের উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। দুর্ঘটনার পর অটোরিকশা ফেলে চালক পালিয়ে গেছে।

হবিগঞ্জে শিশু ধর্ষণ মামলায় লম্পটের যাবজ্জীবন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে শিশু ধর্ষণের মামলায় এক লম্পটের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে তাকে ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদন্ড দেন। গত মঙ্গলবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মাফরোজা পারভীন এ রায় দেন।

জানা যায়, ২০১৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর রাতে ওই উপজেলার রাঙ্গাহাটি গ্রামের বাসিন্দা সোনাহর মিয়ার ৯ বছর বয়সী মেয়ে অন্য বাড়িতে শিক্ষকের কাছে পড়তে যায়। রাত ৮টায় পড়া শেষে ফেরার পথে একই গ্রামের লেদু মিয়ার ছেলে লম্পট সয়ফুল মিয়া তাকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা সোনাহর মিয়া বাদী হয়ে বানিয়াচং থানায় পরদিন মামলা দায়ের করেন। মামলায় ৬ জন সাক্ষির সাক্ষ্যগ্রহণ ও ধর্ষিতার জবানবন্দি নেয়া হয়। পরে যুক্তিতর্ক শেষে আদালত উল্লেখিত রায় দেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন স্পেশাল পিপি আবুল হাশেম মোল্লা মাসুম।

এই বিভাগের আরো খবর

জাফলংয়ে পিয়াইন নদীতে নিখোঁজ তরুণের লাশ উদ্ধার

সিলেটের জাফলংয়ের পিয়াইন নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ তরুণের লাশ একদিন পর উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার সকালে জাফলং জিরো পয়েন্ট থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয় বলে গোয়াইনঘাট থানার ওসি (তদন্ত) হিল্লোল রায় জানান।

নিহত ফয়সল হোসেন সৌরভ (১৮) চট্রগ্রামের ভাঙ্গাপুর এলাকার সিরাজুল মাওলার ছেলে। চট্রগ্রাম সিটি কলেজ থেকে এ বছর এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি।

ওসি হিল্লোল বলেন,“মঙ্গলবার দুপুরে পিয়াইন নদীতে গোসল করতে নেমে তলিয়ে যান সৌরভ। এরপর বিকাল থেকে তার খোঁজে তল্লাশি অভিযান শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা। সকালে তার লাশ পাওয়া যায়।”

এর আগে মঙ্গলবার কামাল পিয়াইন নদীতে ডুবে শেখ নামে ১৭ বছর বয়সী এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু হয়। বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

হবিগঞ্জে হত্যার দায়ে ৮ জনের প্রাণদণ্ড

হবিগঞ্জের মাধবপুরের টিপু সুলতান হত্যা মামলায় আট জনের ফাঁসি ও ১১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে আদালত। বুধবার হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মাফরোজা পারভীন ছয় বছর আগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- সুধাংশু সূত্রধর, সুভাষ সূত্রধর, এরশাদ আলী, আব্দুল মালেক ওরফে মালু, আতাউর রহমান, আবুল কাশেম, আবু লাল ও মোশারফ হোসেন। এর মধ্যে সুধাংশু, সুভাষ ও আব্দুল মালেক আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

যাবজ্জীবনপ্রপ্তরা হলেন- হরমুজ আলী, মোস্তাক আহমেদ, জানু মিয়া, শানু মিয়া, জাবেদ মিয়া, জহির মিয়া, বকুল মিয়া, আমির আলী, দুলাল মিয়া, সায়েদ মিয়া ও কামাল মিয়া।

এদের মধ্যে আদালতে কেবল সায়েদ মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় শাহ আব্দুল গণি, আবু মিয়া ও আব্দুল মজিদকে এ মামলা থেকে খালাস দেওয়া হয়েছে। আদালতে উপস্থিত ছিলেন শাহ নুরুল গণি।

মামলার বিবরণে বলা হয়, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি মহসিন মাস্টারের ছেলে টিপু সুলতানের ঘরে ঢুকে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে কুপিয়ে হত্যা করে।  

দুইদিন পর ৯ জানুয়ারি টিপুর স্ত্রী হাসিনা আক্তার বেবী মাধবপুর থানায় ২৪ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ৩ নভেম্বর সিআইডির পরিদর্শক কামরুজ্জামান ২২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেন।  

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে বিলুপ্তির পথে সুস্বাদু রানি মাছ

সিলেট প্রতিনিধি : যে মাছ দেখলেই লোভ লাগে। জিভে জল এসে যায়। খেতে ইচ্ছে করে। তাই হয়তো সুদৃশ্য, দৃষ্টিনন্দন এ মাছের নাম রাখা হয়েছিল রানি মাছ। আগে মাছের বাজারে গেলেই দেখা মিলত রানি মাছের। এখন আর তেমন চোখে পড়ে না। হঠাৎ দেখা মিললেও তা যৎসামান্য। সিলেটের জলাশয় থেকে হারিয়ে যাচ্ছে সুস্বাদু এ ‘রানি মাছ’। দৃষ্টিনন্দন এ মাছ এক সময় সারা বছরই সিলেটের নদী, খাল-বিল ও হাওর-বাওরে পাওয়া যেত। কিন্তু এখন নেই বললেই চলে।

সিলেটের মৎস্যভান্ডার হিসেবে পরিচিত জলাশয়গুলোতে অপরিকল্পিতভাবে মৎস্য আহরণের ফলে এ মাছ এখন বিলুপ্তির পথে। রানি মাছের বৈজ্ঞানিক নাম ‘বটির ডারিও। সিলেটের বিভিন্ন অঞ্চলে এ মাছকে বেতি মাdeshছ, বৌ মাছ, পুতুল মাছ, বেতাঙ্গি মাছ, বেতরঙ্গি মাছ, বুকতিয়া মাছ ইত্যাদি নামে ডাকা হয়। হলুদের মধ্যে কালো ডোরা কাটা এ মাছ ৪ থেকে ১২ সেন্টিমিটার লম্বা হয়ে থাকে। তবে পরিবেশের ভিন্নতার কারণে মাছের আকার, রং ও স্বাদের পরিবর্তন হয়ে থাকে। ‘রানি মাছ’ সাধারণত কর্দমাক্ত পানিতে থাকতে বেশি পছন্দ করে।

সিলেটের নদ-নদী হাওরে আগে এ মাছ প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যেত। নদী কিংবা বিলে বাঁশের চোঙা ফেলে রাখা হত। পরদিন এ চোঙা তুলে রানি মাছ পাওয়া যেত। জেলেদের জালেও এ মাছ ধরা পড়ত। কিন্তু এখন জালেও এ মাছ ধরা পড়ে না। সেচ করেও খুব একটা পাওয়া যায় না। একাধিক মৎস্য ব্যবসায়ী জানান, রানি মাছের কদর খুব বেশি। কিন্তু মাছটি এখন পাওয়াই যায় না। আগে মাছের ফাঁদে অন্য জাতের সঙ্গে রানি মাছও পাওয়া যেত। মানুষজন শখ করে এ মাছ কিনত। কিন্তু এখন শখ আছে মাছটি নেই। লোকজন খোঁজাখুঁজি করে। কিন্তু আমরা মাছটি দিতে পারি না। পানিতে থাকলে তো এ মাছ ধরা পড়ত। পানি থেকে হারিয়ে যাচ্ছে এ মাছ।

শেরপুরের মৎস্য আড়তদার খালেদ আহমদ বলেন, এক সময় সিলেটের সুরমা ও কুশিয়ারা নদীতে সারা বছরই ‘রানি মাছ’ ধরা পড়ত। তবে বর্ষা মৌসুমে বেশি পরিমাণে এ মাছ পাওয়া যেত। জেলেরা বিভিন্ন জাতের জাল ও চাঁই দিয়ে এ মাছ ধরতেন। নদীতে এখন আগের মতো রানি মাছ পাওয়া যায় না। শুষ্ক মৌসুমে এ মাছের দেখাই মেলে না। বর্ষাকালে মাঝে মধ্যে খুব অল্প পরিমাণে এ মাছ ধরা পড়ে।

স্কুলশিক্ষক ও মাছ ক্রেতা ছয়ফুল আলম পারুল বলেন, ছোটবেলায় অনেক রানি মাছ খেয়েছি। এখন বর্ষাকাল ছাড়া এ মাছ মেলে না। বাজারে সুস্বাদু এ মাছের সরবরাহ কম থাকায় দামও বেশি। প্রতি কেজি রানি মাছ কিনতে হলে এক হাজার থেকে দেড় হাজার টাকায় প্রয়োজন। তাই এখন আর রানি মাছ খাওয়া সবার পক্ষে সম্ভব হয় না।

পর্যটকদের জন্য আবারও উন্মুক্ত মাধবকুন্ড জলপ্রপাত

সিলেট প্রতিনিধি : প্রায় দুইমাস পর  মৌলভীবাজারের বড়লেখায়  দেশের অন্যতম পর্যটন  কেন্দ্র মাধবকুন্ড জলপ্রপাতের  গেট খুলে  দেয়া হয়েছে। বন বিভাগ জরুরি ভিত্তিতে মাধবকুন্ড ইকোপার্ক এলাকা সংস্কারের পর তা ঝুঁকিমুক্ত হয়। ফলে গত রোববার সকালে জলপ্রপাতে প্রবেশের প্রধান ফটক পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হয়। এদিকে দীর্ঘদিন পর জলপ্রপাতের প্রধান ফটক খুলে  দেয়ায় পর্যটক, স্থানীয় ব্যবসায়ী ও ইজারাদারদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে।

রোববার বন বিভাগের বড়লেখা রেঞ্জের সহযোগী  রেঞ্জ কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রোববার সকাল ১০টার দিকে জলপ্রপাতের  গেটটি খুলে দেওয়া হয়েছে। আপাতত ইকোপার্ক পর্যটকদের জন্য ঝুঁকিমুক্ত। এখন  থেকে পর্যটকরা  ভেতরে প্রবেশ করতে পারবে।

প্রসঙ্গত, ভারী বর্ষণে ও পাহাড়ি ঢলে মাধবকুন্ড ইকোপার্ক এলাকার টিলা ও রাস্তা  দেবে গিয়েছিল এতে পর্যটকদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে। ফলে দুর্ঘটনা এড়াতে বন বিভাগ গত ২২ জুন থেকে মাধবকুন্ড ইকোপার্ক ও জলপ্রপাত এলাকা পর্যটকদের জন্য অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে। বন্ধের বিষয়টি না জেনে অনেক দূর-দূরান্ত  থেকে বেড়াতে এসে জলপ্রপাতের প্রধান ফটক থেকে হতাশ হয়ে ফিরেছেন পর্যটকরা। এতে  লোকসানের মুখে পড়েন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও ইজারাদাররা।

এই বিভাগের আরো খবর

হবিগঞ্জে শিশু ধর্ষণ মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে এক শিশুকে ধর্ষণ মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। একই সাথে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়। সোমবার হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মাফরোজা পারভীন এ রায় দেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে- বানিয়াচং উপজেলা সদরের প্রথমরেখ গ্রামের ওয়াব উল্লাহর ছেলে জসিম মিয়া (২২) ও আব্দুল আলীর ছেলে নূরুল আমিন (২১)। মামলার অপর আসামি কারবারী উল্লাহর মেয়ে রুহেনা বেগম (২৭)কে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, উপজেলার নিয়ামতপুর গ্রামের গৌরমনি সরকারের ১৪ বছর বয়সী মেয়ে ২০১৫ সালের মার্চ মাসে প্রথমরেখ গ্রামে বোনের বাড়িতে বেড়াতে যায়। ৪ এপ্রিল সন্ধ্যা রাতে জসিম ও নূরুল আমিন তাকে ধরে নিয়ে যায়। তাকে রুহেনা বেগমের ঘরে নিয়ে মুখে গামছা বেঁধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে সে চিৎকার শুরু করলে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশীরা তাকে গিয়ে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় তার ভগ্নিপতি গোপেন্দ্র সরকার বাদী হয়ে উল্লেখিত ৩ জনকে আসামি করে বানিয়াচং থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আদালত সোমবার উল্লেখিত রায় দেন। রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর সালেহ উদ্দিন আহমেদ জানান, এর মাধ্যমে অপরাধ প্রবণতা হ্রাস পাবে। দোষিদের শাস্তি হলে অন্য কেউ একই ধরনের অপরাধ করতে ভয় পাবে।

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেট নগরীর কুমারপাড়ার ঝর্ণারপাড় এলাকায়  রোববার ভোররাতে নিজ কক্ষ থেকে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত যুবক রাজন মিয়া (৩০) ওসমানী শিশু উদ্যানে চাকরি করতেন। তিনি ঝর্ণারপাড়ের ৯৩/এ নম্বর বাসার বাসিন্দা।

জানা যায়, যুবক রাজন মিয়া শয়ন কক্ষে তার স্ত্রী ভোর ৫টায় ঝুলন্ত অবস্থায় তার স্বামীর মৃতদেহ দেখতে পান। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় তার স্ত্রী রাণী বেগম একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন

সিলেট এসএমপি’র কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গৌছুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে তিনি আত্মহত্যা করেছেন কিনা আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখব।

এই বিভাগের আরো খবর

হবিগঞ্জে ট্রাক্টরের ধাক্কায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত

হবিগঞ্জ সদরে ট্রাক্টরের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী এক পুলিশ কনস্টেবল নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বৈদ্যার বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ইমরান আহমেদ (২৫) হবিগঞ্জ সার্কেল অফিসে কর্মরত ছিলেন। তিনি সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার রানাদির গ্রামের বাসিন্দা।

হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি ইয়াছিনুল হক জানান, কনস্টেবল ইমরান হবিগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেলে গ্রামের বাড়ি সিলেটে যাচ্ছিলেন।

“বৈদ্যারবাজারে ঈদগাঁহ-এর কাছে রাবিশ বহনকারী একটি ট্রাক্টর তার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে তিনি রাস্তায় ছিটকে পড়েন। ওই সময় মোটরসাইকেলে আগুন ধরে যায়।”

ওসি জানান, স্থানীয় লোকজন কনস্টেবল ইমরানকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে ঘটনার পর স্থানীয় জনতা ট্রাক্টরটি আটক করলেও গাড়ি চালক পালিয়ে গেছে বলে তিনি জানান।

 

এই বিভাগের আরো খবর

কুলাউড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা কৃষ্ণপুর এলাকায় অটো রিকশা ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন।

সোমবার বিকালের এই দুর্ঘটনায় আরও তিনজন আহত হন বলে  জানিয়েছেন কুলাউড়া থানার ওসি মো. শামিম মোছা।

তিনি বলেন, “অটো রিকশা ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে পাঁচজন গুরুতর আহত হন। তাদের  মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেওয়া হয়। দুজনের অবস্থার অবনতি হলে তাদের সিলেট পাঠানো হয়। সেখানে রাতে তাদের মৃত্যু হয়।”

নিহতরা হলেন বরমচাল এলাকার উত্তরভাগের দরচ ওময়ার ছেলে ময়না মিয়া (৫৮) এবং সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার নাছির মিয়ার স্ত্রী তছলিমা  বেগম (৪৮)।

আহতরা হলেন- গোলপগঞ্জের ভাদেশ্বর এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে মোবারক আলী (৭০), ভাটেরার ইসলাম নগরের রেদওয়ানুল হকের স্ত্রী তানজিনা (৪০) ও সিএনজি চালক হোসেন (৩০)।

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে ছাত্রলীগের স্মরণ সভায় গুলিবিদ্ধ ৩

সিলেটে এক ছাত্রলীগ নেতার স্মরণ সভায় যুবলীগের দুই পক্ষের বাক-বিতণ্ডা থেকে গুলিতে তিনজন আহত হয়েছেন। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ ও সিলেট মহানগর সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের উপস্থিতিতে শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দক্ষিণ সুরামার কুশিঘাটের একটি মাঠে সভায় এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গুলিবিদ্ধ ছাত্রলীগ নেতা জাকির আহমদ খোকা, জামিল আহমদ, সুহেল আহমদকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মোগলাবাজার থানার ওসি খায়রুল ফজল বলেন, গত মার্চে শিববাড়ির আতিয়া মহলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জঙ্গিবিরোধী অভিযান চলাকালে পাশে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ছাত্রলীগ নেতা জান্নাতুল ফাহিমের স্মরণে রাত সাড়ে ৭টার দিকে সভা শুরু হয়।

“সভা চলাকালে যুবলীগের দুই পক্ষ বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এরপরে যুবলীগ নেতাকর্মীদের ছোড়া গুলিতে ওই তিনজন আহত হয়।”

এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত মহানগর যুবলীগ নেতা ও স্থানীয় বাসিন্দা জাকিরুল আলম জাকির বলেন, “দুইপক্ষের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে কারা গুলি করেছে, তা জানি না।”

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা বলেন, “যুবলীগের নিজেদের মধ্যে বিরোধ থেকে এই ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছি।”

 

এই বিভাগের আরো খবর

শাহজালালে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৪

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে চারজন আহত হয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের স্থগিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজের অনুসারীদের মধ্যে শনিবার সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত কয়েক দফা সংঘর্ষ হয় বলে সহকারী প্রক্টর আবু হেনা পহিল  জানান।

আহতরা হলেন- ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম অন্তু, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হোসেন নাইম, ছাত্রলীগ কর্মী আব্দুউল্লাহ আল মাসুদ ও সীমান্ত।

ওই চারজনই সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। তাদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বর এলাকায় ধূমপান করা নিয়ে ইমরান গ্রুপের অনুসারী সাজ্জাদ ও তন্ময়ের সঙ্গে সবুজ গ্রুপের অনুসারী মনিরুজ্জামান মনির বাকবিতণ্ডা হয়।

একপর্যায়ে মনিরের সঙ্গে থাকা কর্মীরা তন্ময়কে মারধর করলে উভয়পক্ষ সংঘবদ্ধ হয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষে জড়ায়।

এসময় সবুজের অনুসারীরা শাহপরাণ হলে গিয়ে ইমরানের গ্রুপের নিয়ন্ত্রণে থাকা কয়েকটি কক্ষ ও দুটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজ বলেন, “জুনিয়রদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির কারণে একটু ঝামেলা হয়েছে। পরে সিনিয়রদের হস্তক্ষেপে বিষয়টি মিটমাট হয়েছে।”

আর সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান বলেন, “এটা জুনিয়রদের অর্ন্তকোন্দল। সমাধান হয়ে গেছে।” প্রক্টর জহির উদ্দিন আহমেদ বলেন, “আহতদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আমরা বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি।”

গত ৮ এপ্রিল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বেড়াতে গিয়ে দুই তরুণ-তরুণী ছাত্রলীগ কর্মীদের মারধরের শিকার হন। এর প্রতিবাদ করায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের অনুসারীরা দুই সাংবাদিকের ওপরও হামলা করেন।

ওই ঘটনার পর গত ১২ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি কেন্দ্র থেকে স্থগিত করা হয়।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ওসমানী বিমানবন্দরে সাড়ে ৩ কেজি সোনা উদ্ধার

সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আবুধাবি থেকে আসা বিমানের একটি ফ্লাইট থেকে সাড়ে তিন কেজি ওজনের সোনা উদ্ধার করেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা।

সিলেট শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের সহকারী পরিচালক প্রভাত কুমার সিংহ জানান, রোববার সকালে উড়োজাহাজের লাগেজ হোল্ডে ওই সোনা পাওয়া যায়।

তিনি জানান, সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবি থেকে আসা বাংলাদেশে বিমানের ফ্লাইট বিজি-০১২৮ সিলেট হয়ে ঢাকা যাচ্ছিল।

সকাল সাড়ে ৬টায় উড়োজাহাজটি ওসমানীতে নামার পর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুল্ক গোয়েন্দারা বিমানে তল্লাশি চালিয়ে টেপ মোড়ানো ৩০টি সোনার বিস্কুট পান।

উদ্ধার সোনার বিস্কুটগুলোর মোট ওজন সাড়ে তিন কেজি; দাম প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকা বলে প্রভাত কুমার সিংহ জানান। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেননি শুল্ক গোয়েন্দারা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

গভীর রাতে বিলে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবি, নিহত ২

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় গভীর রাতে বিলের পানিতে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবে দুই তরুণের মৃত্যু হয়েছে। ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি নাজমুল হক জানান, মঙ্গলবার রাতে উপজেলার নূরপুর এলাকায় গাড়ুনি বিলে নৌকা ডুবির এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন – সিলেট শহরের ফাজিলচিস্ত এলাকার আব্দুল মতিনের ছেলে রিয়াজ আহমদ (২৪) ও খালাত ভাই শিহান উদ্দিন (২৭)। ওসি হক বলেন, নূরপুর এলাকায় শিহানদের বাড়িতে সপরিবার বেড়াতে আসেন রিয়াজ আহমদ।

“রাত সোয়া ১১টার দিকে পাঁচজন মিলে ছোট খেয়া নৌকা নিয়ে স্থানীয় গাড়ুনি বিলে বেড়াতে যান। হঠাৎ বাতাস উঠলে নৌকা ডুবে যায়। এ সময় তিনজন সাঁতরে তীরে উঠলেও রিয়াজ ও শিহান নিখোঁজ হন।”

পরে রাত ১টার দিকে পুলিশ ও স্থানীয়রা লাশ উদ্ধার করে বলে জানান ওসি হক।

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

সিলেটে প্রতিনিধি :  আধিপত্য বিস্তারকে  কেন্দ্র করে সিলেটের বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে এক কর্মীকে  শ্রেণিকক্ষে ঢুকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত ছাত্রলীগ কর্মীর নাম খালেদ আহমদ লিটু (২৩)। লিটু ছাত্রলীগের সিলেট  জেলা শাখার আপ্যায়ন বিষয় সম্পাদক পাভেল মাহমুদ গ্রুপের কর্মী বলে জানা  গেছে।

 সোমবার দুপুরে ছাত্রলীগের পল্লব ও পাভেল গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন। নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সুজ্ঞান চাকমা জানিয়েছেন, গুলি খালেদ আহমদ লিটুর মাথায়  লেগেছে। খবর  পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে।

জানা যায়, সকালে কলেজের প্রথম বর্ষের দুই ছাত্রের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে কলেজ ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়ায়। খবর  পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এসময় পুলিশের পাঁচ সদস্য কলেজের প্রধান ফটকে দায়িত্বে ছিলেন।  বেলা ১২টার দিকে ইংরেজি বিভাগের একটি কক্ষ  থেকে গুলির শব্দ শুনে ক্যাম্পাসে থাকা পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে যুবকের রক্তাক্ত লাশ  দেখতে পান। যুবকের ডান  চোখের উপরে গুলির আঘাত  লেগে মাথার  পেছন  থেকে  বেরিয়ে যায়। এ সময় কক্ষে অন্য কাউকে পায়নি পুলিশ। এমনকি কক্ষে  কোন ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া যায়নি। নিহত যুবক লিটন আহমদ লিটু  পৌরশহরের নয়াগ্রাম  রোডে একটি  মোবাইল  দোকানের মালিক।  সে  পৌরসভার খাসা পন্ডিত পাড়া এলাকার খলিলুর রহমানের পুত্র। তবে  কেন তিনি কি কারণে কলেজের ওই কক্ষে অবস্থান করছিলেন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তার মৃত্যুটি  চোরাগোপ্তা হামলা না ছাত্রলীগের বিবদমান গ্রুপের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দল থেকে ঘটেছে এ বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্টের পর সিএনজিযোগে তার লাশ বিয়ানীবাজার হাসপাতালে প্রেরণ করে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাহরিয়ার জানান, ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করছি। গুলিতে তার মাথার মগজ  বের হয়ে যায়। পরে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ সিলেট মর্গে প্রেরণ করে।

উদ্ভুত পরিস্থিতির কারণে কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের পরীক্ষা স্থগিত  ঘোষণা করেছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। একই সাথে কলেজ ছুটি  দেয়া হয়। এদিকে খুন করার ঘটনায় তিন জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। হত্যাকান্ডের পরই তাদের আটক করা হয়। তারা হচ্ছে ছাত্রলীগ  নেতা পাভেল গ্রুপের কর্মী কামরান, ফাহাদ ও এমদাদ।

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে দুদক কর্মচারীর লাশ উদ্ধার

সিলেটে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক সহকারী উপ-পরিদর্শকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে নগরীর বাগবাড়ি এলাকার দুদক ব্যারাকের একটি কক্ষে লাশটি যাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার ওসি গৌছুল হোসেন।

মৃত লেহাজ উদ্দিন (৫৩) দুদক সিলেট আঞ্চলিক কার্যালয়ে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলায়। ওসি বলেন, নিজ কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় লেহাজের লাশ পাওয়া যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে পর ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

“তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।” লেহাজ ব্যারাকে পরিবার ছাড়া একাই থাকতেন। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে গাজীপুরে থাকেন।

লেহাজের লাশ নিতে তার ছেলে গাজীপুর থেকে সিলেটে আসছেন বলে জানান ওসি।

 

এই বিভাগের আরো খবর

অবশেষে লন্ডন গেলেন ইলিয়াস আলীর স্ত্রী

সিলেট প্রতিনিধি : আদালতের আদেশের পর ছেলের স্নাতক সমাপনীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে লন্ডন গেছেন নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা। বুধবার সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ছোট ছেলে লাবিব সারার ও ছোট মেয়ে সাইয়ারা নাওয়ালকে নিয়ে ঢাকা ছেড়েছেন তিনি। এর আগে গত রোববার ইমিগ্রেশন বিভাগ লন্ডনে যেতে বাধা দেওয়ার পর হাই কোর্টে রিট করেন লুনা। সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. তারিক উল হাকিম ও মো. ফারুকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ তাকে বিদেশে যেতে বাধা না দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে আদেশ জারি করেন। ইলিয়াস আলীর বড় ছেলে ব্রিস্টলে ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্ট অব ইংল্যান্ডে আইনে স্নাতক শেষ করেছেন। আগামী ১৪ জুলাই তার স্নাতক সমাপনী অনুষ্ঠান।

২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাতে রাজধানীর মহাখালীতে বাসার কাছে ইলিয়াসের গাড়ি পাওয়া যায়। তখন থেকে নিখোঁজ ইলিয়াস ও তার গাড়িচালক আনসার আলী। ইলিয়াস বিএনপির গত কমিটির সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। সিলেট জেলা কমিটির সভাপতিও ছিলেন তিনি। লুনা বর্তমানে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য।

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেটের দক্ষিণ সুরমার  মোল্লারগাও ইউনিয়নের খালপার গ্রামের সুরমা নদীর তীরে অজ্ঞাত এক যুবকের (২৮/৩০ বছর) লাশ পাওয়া  গেছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে  পথচারীরা খালপার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে সুরমা নদীর তীরে ওই যুবককে পড়ে থাকতে  দেখে।  সেখানে গিয়ে  দেখা যায় যুবকটি হালকাভাবে শ্বাস নিচ্ছে পায়। এ সময় যুবকের শরীর  থেকে রক্ত ঝরছিল। সাথে সাথে স্থানীয় ইউপি সদস্য শরীফ উদ্দিনকে খবর দিলে তিনি ঘটনাস্থলে পৌছে পুলিশকে খবর দেন। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে লোকজন ভিড় করতে থাকেন যুবকটিকে এক নজর দেখার জন্য।  লোকজন জড়ো হবার আগেই যুবকটি মারা যায়। তবে  লোকটি নাম পরিচয় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি পানিবন্দী কয়েক লাখ মানুষ

এমএ.সাবলু হৃদয়, সিলেট : সিলেটে বৃষ্টি ও অব্যাহত পাহাড়ি ঢলের কারণে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। সিলেটে নদনদীগুলোর পানি বেড়েছে। এতে সিলেটে কয়েক লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। নতুন করে তলিয়ে গেছে আরো কয়েকটি এলাকা। এদিকে দক্ষিণ সুরমার ১৪টি গ্রাম বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। এদিকে বালাগঞ্জে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৮০ ভাগ লোকই পানিবন্দী অবস্থায় জীবনযাপন করছে। কুশিয়ারা ডাইক একাধিক স্থানে ভেঙে গিয়ে পানি প্রবেশ করছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম জানান, কুশিয়ারা নদীর পানি আমলসিদ পয়েন্টে বিপদসীমার ৯৬ সেন্টিমিটার ও ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ১৪১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে। সুরমার পানিও বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিনি জানান, নদীর পানি তীর উপচে প্রবেশ করায় প্রায় এক সপ্তাহ ধরে ছয় উপজেলার সুরমা ও কুশিয়ারা অববাহিকায় নদীর তীরের দুই শতাধিক গ্রামের নিম্নাঞ্চল পানির নিচে আছে। নতুন করে প্লাবিত হয়েছে দক্ষিণ সুরমা, বালাগঞ্জ ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি এলাকা।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্যমতে, উজানে ভারতের মেঘালয় পাহাড়ে টানা বর্ষণের কারণে সিলেটের কুশিয়ারা ও সুরমা নদীর পানি বাড়তে থাকে। বর্তমানে দু’টি নদীর সবকটি পয়েন্টে বিপদসীমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এর মধ্যে কুশিয়ারা নদীর পানি ঢুকে জেলার দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, বালাগঞ্জ, ওসমানীনগর, গোলাপগঞ্জ ও জকিগঞ্জ উপজেলায় বন্যা দেখা দেয়। উজানে টানা বর্ষণ হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হয়েছে।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বন্যার কারণে জেলার ১৭৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে ১৬১টি প্রাথমিক ও ১৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
সিলেট জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার জানান, কুশিয়ারা অববাহিকায় ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ, গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, ওসমানীনগর উপজেলার বন্যার পানি কিছুটা বেড়েছে। গোয়াইনঘাট উপজেলায় অপরিবর্তিত থাকলেও নতুন করে প্লাবিত হয়েছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নিম্নাঞ্চল। বাড়িঘর ডুবে যাওয়ায় অনেকে আশ্রয় কেন্দ্রে উঠছেন। জেলায় নয়টি আশ্রয় কেন্দ্রে ৮৯টি পরিবার আশ্রয় নিয়েছে। প্রতিটি উপজেলায় মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। পানিবন্দি জনসাধারণ যাতে সরকারি সাহায্য থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে সবাই সজাগ থাকতে হবে। সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব থেকে পানি বন্দি মানুষের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ত্রাণের কোন অভাব হবে না। ত্রাণের জন্য কোন লোক যেন মারা না যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। দুর্যোগের সময় নিজের মন থেকে অসহাদের পক্ষে কাজ করলে আনন্দ লাভ করা যায়।

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটের ৭ উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতি অবনতি

সিলেট প্রতিনিধি: ভারী বর্ষণ আর উজানের পাহাড়ি ঢলে সিলেটের সাত উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানি বেড়েছে। কয়েকটি নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বন্যার কারণে জেলার ১৭৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে ১৬১টি প্রাথমিক ও ১৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
সিলেট জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার জানান, কুশিয়ারা অববাহিকায় ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ, গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, ওসমানীনগর উপজেলার বন্যার পানি কিছুটা বেড়েছে।

গোয়াইনঘাট উপজেলায় অপরিবর্তিত থাকলেও নতুন করে প্লাবিত হয়েছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নিম্নাঞ্চল। পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী  সিরাজুল ইসলাম জানান, কুশিয়ারা নদীর পানি অমলসিদ পয়েন্টে বিপদসীমার ৯৬ সেন্টিমিটার ও ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ১৪১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে। সুরমার পানিও বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিনি জানান, নদীর পানি তীর উপচে প্রবেশ করায় প্রায় এক সপ্তাহ ধরে ছয় উপজেলার সুরমা ও কুশিয়ারা অববাহিকায় নদীর তীরের দুই শতাধিক গ্রামের নিম্বাঞ্চল পানির নীচে আছে। নতুন করে প্লাবিত হয়েছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি এলাকা।

ঘরবাড়ি, দোকান পাট ডুবেছে। তলিয়ে গেছে প্রায় তিন হাজার হেক্টর আউশ জমির ফসল। জেলা প্রশাসক জানান, বাড়ি-ঘর ডুবে যাওয়ায় অনেকে আশ্রয় কেন্দ্রে উঠছেন। জেলায় নয়টি আশ্রয় কেন্দ্রে ৮৯টি পরিবার আশ্রয় নিয়েছে। বন্যাদুর্গত এলাকায় মানুষের অভিযোগ, অনেকেই অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে। ত্রাণের আশায় পথ চেয়ে থাকলেও দেখা মিলছে না কারও। বালাগঞ্জের দেওয়ান বাজার এলাকার মন্তাজ আলী বলেন, বানবাসী মানুষের পাশে কেউ নেই। বাড়ি-ঘর বন্যায় ডুবে গেছে। এখন পর্যন্ত কোনো ত্রাণ বা সাহায্য পাইনি। বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দাল মিয়া বলেন, বন্যায় যত মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সে অনুপাতে ত্রাণ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তাই কেউ পাচ্ছে আবার কেউ পাচ্ছে না। জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন, দুর্গত এলাকায় এ পর্যন্ত ১৩৭ মেট্রিকটন চাল ও প্রায় তিন লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। পর্যাপ্ত ত্রাণ মজুদ রয়েছে। দুর্গত মানুষদের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হবে। ফেঞ্চুগঞ্জের চণ্ডিপ্রসাদ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয় নেওয়া হাবিবা আক্তার বলেন, পানি ঢুকে বাড়ি-ঘর ধসে পড়েছে। কোনো আশ্রয় না থাকায় বাচ্চাদের নিয়ে এ স্কুলে আশ্রয় নিয়েছি। ঘরে খাবার নেই। কী করব, কোথায় যাব বুঝতে পারছি না।

এই বিভাগের আরো খবর

প্রস্তুত হচ্ছে সিলেট শাহী ঈদগাহ

সিলেট প্রতিনিধি : আর মাত্র কয়েকদিন বাকি পবিত্র ঈদুল ফিতরের। সিলেটের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সিলেটের ঐতিহাসিক শাহী ঈদগাহ ময়দানে। তাই ঈদের জামাতকে সফল করে তুলতে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি।  সেখানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টায়।
শাহী ঈদগাহে গিয়ে দেখা যায়, পরিচ্ছন্নকর্মীরা  সেখানে কাজ করছেন। চলছে ঝাড়ু  দেয়া, ঘাস পরিষ্কার করা, চলছে মাইকিং এর লাইন তৈরির কাজ, ময়দানের  দেয়ালে ও মিনারে রঙ লাগানোর কাজ।

সিলেটের প্রধান জামাত এখানে অনুষ্ঠিত হয় বিধায় মানুষের চাপ থাকে বেশি। তাই ময়দান থেকে মানুষের চাপ রাস্তা পর্যন্ত চলে যায়। তাই নগরীর স্কলার্সহোম স্কুল পর্যন্ত নামাজের উপযোগী করে  তোলার জন্যও কাজ করে যাচ্ছেন পরিচ্ছন্ন কর্মীরা।
এদিকে সিলেটে ঈদের জামাত নির্বিঘœ করতে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে বলে জানিয়েছেন সিলেট  মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া)।
 

সিলেটের ডাকের প্রকাশনা অনুমতি বাতিল

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটের বিতর্কিত শিল্পপতি রাগীব আলীর মালিকানাধীন পত্রিকা দৈনিক সিলেটের ডাকের প্রকাশনার অনুমোদন (ডিক্লেরেশন) বাতিল করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার জানান, বৃহস্পতিবার পত্রিকাটির ডিক্লেরেশন বাতিল করা হয় এবং রোববার ওই নোটিশ সিলেটের ডাক কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। প্রকাশক রাগীব আলী আদালতের রায়ে সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় আইন অনুযায়ী পত্রিকাটির প্রকাশনার অনুমোদন বাতিল করা হয়েছে বলে জানান তিনি। ডিক্লেরেশন বাতিলের ফলে সিলেটের প্রকাশ সংখ্যায় শীর্ষে থাকা পত্রিকাটি আর প্রকাশ করা যাবে না বলেও জানান জেলা প্রকাশক।

এ ব্যাপারে পত্রিকাটির ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মো. আব্দুল হান্নান ও নির্বাহী সম্পাদক আব্দুল হামিদ মানিকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তারা কল রিসিভ করেননি। সিলেটের ডাকের প্রকাশক ও সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি রাগীব তিন মামলায় ভিন্ন ভিন্ন মেয়াদে দণ্ডিত হয়ে বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। পত্রিকাটির সম্পাদকের দায়িত্ব থাকা রাগীব আলীর ছেলে আব্দুল হাইও সিলেট কারাগারে দণ্ডিত হয়ে কারাবন্দি রয়েছেন।

দেবোত্তর সম্পত্তি বন্দোবস্তের নামে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি মামলার রায়ে গত ২ ফেব্রুয়ারি রাগিব আলী ও তার ছেলেকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেয় আদালত। প্রতারণার আরেক মামলায় গত ৬ এপ্রিল রাগীব আলীর ১৪ বছর, ছেলে আবদুল হাই, জামাতা আবদুল কাদির, মেয়ে রুজিনা কাদির ও নিকটাত্মীয় দেওয়ান মোস্তাক মজিদকে ১৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। তাছাড়া গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর পলাতক থাকা অবস্থায় পত্রিকা প্রকাশের কারণে রাগীব আলী ও তার ছেলের বিরুদ্ধে দায়ের আরেক মামলায় তাদের এক বছর করে কারাদণ্ডও দেওয়া হয়েছে।

মৌলভীবাজারে পাহাড় ধসে মা-মেয়ের মৃত্যু

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় পাহাড় ধসে মা ও মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার ডিমাই এলাকায় রোববার ভোরে এ ঘটনা ঘটে বলে বড়লেখা থানার ওসি  শহীদুল ইসলাম জানান।

নিহতরা হলেন- আছিয়া বেগম (৪০) ও তার মেয়ে ফাহমিদা (১৩)। ওসি বলেন, “প্রবল বর্ষণের কারণে রোববার ভোর ৩টা থেকে ৪টার মধ্যে ডিমাই এলাকার বেশ কয়েকটি পাহাড়ে ধস নামে। এ সময় আছিয়া বেগমের ঘরের ওপর মাটি ধসে পড়লে তিনি ও তার মেয়ে চাপা পড়েন।”

খবর পেয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে গিয়ে সকাল ৯টার দিকে মাটি সরিয়ে লাশ উদ্ধার করে বলে জানান শহীদুল। স্থানীয় বাসিন্দা লিটন শরিফ বলেন, ডিমাই এলাকায় আরও কয়েকটি পাহাড় ধসে কয়েকটি ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে সেখানে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

 

কোম্পানিগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে ২ শিশুসহ ৩ জনের মৃত্যু

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটের কোম্পানিগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে দুই শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার দুপুর ১টার দিকে মরদেহ দু’টি উদ্ধার করা হয়। নিহত দুই শিশু হলো- তামান্না (৩) ও সুলতানা (১)। অপর নিহত হলেন ৫৬ বছর বয়সী ফারুক মিয়া। এর মধ্যে নিহত শিশু সুলতানার মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। কোম্পানিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলতাফ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার সকালে অতিবৃষ্টিতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে উপজেলার পশ্চিম কালাইরাগ গ্রামের সেলিম মিয়ার বসতঘর ভেঙে নিয়ে যায়। এ সময় ঢলের পানিতে ভেসে যান সেলিম মিয়ার দুই শিশু কন্যা তামান্না (৩) ও সুলতানা (১)। একই সময় পাশ্ববর্তী মৃত ইউসুব আলীর ছেলে ৫৬ বছর বয়সী ফারুক মিয়াও নিখোঁজ হন। পরে তামান্না ও ফারুক মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হলেও সুলতানার মরদেহ এখনও পাওয়া যায়নি। স্থানীয়রা সুলতানার মরদেহ উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। স্থানীয় বাসিন্দা ডা. হারুন অর রশিদ  বলেন, সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছিল। সকালে হঠাৎ করে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সেলিম মিয়ার কাঁচা বাঁশ-বেতের ঘর ভাসিয়ে নিয়ে যায়। ওসি আলতাফ হোসেন আরও বলেন, স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় স্রোতের তোড়ে ভেসে যাওয়া মরদেহ দু’টি দুপুর ১টার দিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। তবে সুলতানা নামের এক শিশুর মরদেহ এখনও পাওয়া যায়নি। ঘুমন্ত অবস্থায় দুই শিশু ও বৃদ্ধ পাহাড়ি ঢলে ঘরের সঙ্গে ভেসে যায় বলেন তিনি।

সিলেটে ঘাস কাটা নিয়ে বিরোধে ‘ছুরিকাঘাতে হত্যা’

সিলেটের ওসমানীনগরে ঘাস কাটা নিয়ে কথা কাটাকাটির মধ্যে দুই প্রতিবেশীর ছুরিকাঘাতে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। নিহত ছোরাব খাঁ (৬০) উপজেলার সন্ন্যাসীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

ওসমানীনগর থানার ওসি সহিদ উল্লাহ জানান, উপজেলার সন্ন্যাসীপাড়া গ্রামে বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনায় ছোরার দুই ছেলেও আহত হয়েছেন। এরা হলেন- জগলু ও শিবলু। তাদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওসি সহিদ বলেন, সকালে স্থানীয় রুনিয়ার হাওরে গরুর জন্য ঘাস কাটতে যান ছোরাব। এ সময় পাশের বাড়ির ফারুক আলী ও সেবুল আহমদ তাকে বাধা দিলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়।

“এক পর্যায়ে তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছোরাব আলীকে কুপিয়ে জখম করেন। তাকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।”

এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান শুরু হয়েছে বলে জানান ওসি।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

 

সিলেটে ‘মসজিদের বাতি জ্বালানো নিয়ে’ সংঘর্ষ, নিহত ১

সিলেটের বিয়ানীবাজারে মসজিদের বাতি জ্বালানো নিয়ে ঝগড়া থেকে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। উপজেলার পাতন গ্রামে রোববার রাতে এ ঘটনায় আরও আটজন আহত হয়েছেন বলে বিয়ানীবাজার থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান।

নিহত মুহিদুর রহমান মিন্টু (৫৫) ওই গ্রামের ছওয়াব আলীর ছেলে।

আহতদের চিকিৎসার জন্য বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ। ওসি চন্দন বলেন, রোববার রাত ১১টার দিকে মসজিদের বাতি জ্বালানো নিয়ে স্থানীয় রেজা আহমদ ও নোমান মিয়ার মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

“এক পর্যায়ে দুই পক্ষের অনুসারীরা দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় রেজার ভাই মিন্টু গুরুতর আহত হন।” সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মিন্টুর মৃত্যু হয় বলে জানান ওসি।

তিনি বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ঘটনাস্থলে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে সোমবার দুপুর পর্যন্ত থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি।

 

হবিগঞ্জে স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জ শহরের নোয়াহাঠি এলাকায় মুক্তা দেব নামে এক স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। মুক্তা ওই এলাকার দিরেন্দ্র দেবের মেয়ে এবং স্থানীয় বিকেজিসি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী।

হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াছিনুল হক  জানান, সকালে স্থানীয়রা বাসার রান্না ঘরে ওই ছাত্রীর মরদেহ ঝুলতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তবে তার মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি।

 



Go Top