এমন গোল আগে করেনি উরুগুয়ে

এমন গোল আগে করেনি উরুগুয়ে

ম্যাচের অষ্টম মিনিটে উরুগুয়ের দুই ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেস ও এদিনসন কাভানির মিলিত প্রচেষ্টার গোলটি নিয়ে বিস্মিত ফের্নান্দো সান্তোস। উরুগুয়ে এমন গোল আগে করেনি বলে এর জন্য ডিফেন্ডাররা প্রস্তুত ছিল না বলে জানালেন পর্তুগাল কোচের।

সোচির ফিশৎ স্টেডিয়ামে গত শনিবার কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে কাভানির জোড়া গোলে ২-১ গোলে হারে পর্তুগাল। এর মধ্যে কাভানির প্রথম গোলটি ছিল সুয়ারেসের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে। মাঝ মাঠে বল পেয়ে কিছুটা এগিয়ে ডান দিক থেকে মাঠের অন্য প্রান্তে সুয়ারেসকে পাঠান কাভানি। এরপর ডি-বক্সে ছুটে গিয়ে বাঁ দিক থেকে আসা সতীর্থের দারুণ ক্রসে হেডে গোল করেন পিএসজির এই ফরোয়ার্ড।
 
ম্যাচ শেষে সান্তোস জানান, প্রতিপক্ষদের তিনি ভালোভাবে বিশ্লেষণ করেছিলেন কিন্তু সুয়ারেস-কাভানির মিলিত প্রচেষ্টায় হওয়ার প্রথম গোলটির জন্য প্রস্তুত থাকা অসম্ভব ছিল।
 
“বাঁ দিকে ক্রস গেল, এরপর ডান দিকে ক্রস এল-এর বিপক্ষে কোনো উপায় ছিল না। তাদের স্ট্রাইকাররা খুব শক্তিশালী ছিল। একজন সেখানে ছিল, অন্যজন পেছন থেকে এলো। সেটা ছিল অবিশ্বাস্য খেলা। তারা এমন গোল আগে কখনও করেনি।”
 
৫৫তম মিনিটে কর্নার থেকে হেডে লক্ষ্যভেদ করে পর্তুগালকে ম্যাচে ফেরান পেপে। কিন্তু উরুগুয়েকে আটকে রাখা যায়নি। ৬২তম মিনিটে কাভানির কোনাকুনি শট জাল খুঁজে নিলে ফের পিছিয়ে পড়ে পর্তুগাল। সান্তোসও মেনে নিচ্ছেন উরুগুয়ের রক্ষণের সঙ্গে পেরে ওঠেননি তারা।
  
“আমরা জানি তাদের মাঝমাঠ খুবই আঁটসাঁট। তাই জায়গা তৈরি করে খেলে উরুগুয়ের রক্ষণ উন্মুক্ত করার চেষ্টা করার জন্য আমাদের কিছু খেলোয়াড় ছিল। প্রথমার্ধে আমরা এটা খুব বেশি পারিনি। দ্বিতীয়ার্ধে তুলনামূলকভাবে ভালো করেছিলাম কিন্তু পারিনি।