মেসিকে ‘নিষ্ক্রিয়’ রাখার আশা ফ্রান্স কোচের

মেসিকে ‘নিষ্ক্রিয়’ রাখার আশা ফ্রান্স কোচের

শেষ ষোলোর লড়াইয়ে আর্জেন্টিনা তারকা লিওনেল মেসিকে শিষ্যরা নিষ্ক্রিয় করে রাখবে বলে বিশ্বাস ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশমের। তবে তিনি এটাও স্বীকার করে নিচ্ছেন, অল্প সুযোগ পেলেই জ্বলে উঠতে পারে বিশ্বের অন্যতম সেরা এই খেলোয়াড়।

কাজানে শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে দুই দল।

আগেভাগেই নক-আউট পর্ব নিশ্চিত করে ফেলায় গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে ডেনমার্কের বিপক্ষে বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দেয় ফ্রান্স।

তেমনটা পারেনি আর্জেন্টিনা। আইসল্যান্ডের সঙ্গে ড্র করার পর ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলে হারে নকআউট পর্বে ওঠা অনিশ্চিত হয়ে পড়ে তাদের। গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচটা হয়ে ওঠে বাঁচা-মরার লড়াই। এই ম্যাচে দারুণ এক গোলে দলকে এগিয়ে নেন মেসি। শেষ মুহূর্তে মার্কোস রোহো গোল করলে রোমাঞ্চকর এক জয়ে পরের রাউন্ডের টিকেট পায় হোর্হে সাম্পাওলির দল।

আর্জেন্টিনা অধিনায়ক মেসিকে নিয়েই যত ভয় দেশমের। পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার একাই চলতি বিশ্বকাপে ফ্রান্সের পথ চলা শেষ করে দিতে পারে বলে মনে করেন ৪৯ বছর বয়সী এই কোচ। 

“মেসি মেসিই। তার পরিসংখ্যানের দিকে তাকান, ১২৭ ম্যাচে ৬৫ গোল। আশা করি, আমরা তাকে মার্ক করে নিষ্ক্রিয় করে রাখতে পারব। অবশ্য অল্প সুযোগেই সে পার্থক্য গড়ে দিতে পারে।”

“যখন আপনি আর্জেন্টিনা ও মেসির বিপক্ষে খেলবেন তখন অন্তত তার প্রভাবটা সীমিত রাখার কিছু উপায় আছে। তবে তাদের দলটা খুবই অভিজ্ঞ। আমরা মেসির ব্যাপারে কথা বলি। তবে হাভিয়ের মাসচেরানোও অনেক ম্যাচ খেলেছে। তাই চাপে সে অভ্যস্ত।”

“আমাদের অনভিজ্ঞ অনেক খেলোয়াড় আছে। এটা কোনো অজুহাত না, এটা বাস্তবতা। আগামীকাল বিষয়গুলো যাতে ভালো যায় সেজন্য আমরা আমাদের সেরাটা দেব।”

খুব সম্ভবত, আর্জেন্টিনার বিপক্ষে রক্ষণে লুকা এরনঁদেজ, সামুয়েল উমতিতি ও রাফায়েল ভারানেকে রাখতে পারেন দেশম। লা লিগায় খেলায় এই তিন ডিফেন্ডারেরই মেসির ব্যাপারে বেশ জানাশোনা। উমতিতি বার্সেলোনায় মেসির সতীর্থ। এরনঁদেজ খেলেন আতলেতিকো মাদ্রিদে, ভারানে রিয়াল মাদ্রিদে। তবে মেসির বিপক্ষে শিষ্যদের খেলার অভিজ্ঞতা থাকার বিষয়টা খুব কাজে দিয়ে ফেলবে বলে মনে করেন না ফ্রান্স কোচ।

“তবে প্রতিভার কারণে মেসি মেসিই। অল্পতেই সে জ্বলে উঠে এবং পার্থক্য গড়ে দেয়। তার ব্যাপারে আগেভাগে কিছু বলা যায় না।