আধুনিক ফুটবলের পরাশক্তি ব্রাজিল

আধুনিক ফুটবলের পরাশক্তি ব্রাজিল

শেষ ম্যাচ হেরে বিদায়, তবে প্রতিপক্ষ ব্রাজিল বলে নিয়তিটা মেনেই নিয়েছেন সার্বিয়া কোচ ম্লাদেন ক্রাস্তাইচ। স্বীকার করে নিয়েছেন ‘আধুনিক ফুটবলের পরাশক্তি’ ব্রাজিলের সঙ্গে তাদের ব্যবধান অনেক।

বুধবার ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে মস্কোর স্পার্তাক স্টেডিয়ামে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে রাশিয়ার আসর থেকে ছিটকে যায় সার্বিয়া। নকআউট পর্বে উঠতে হলে জিততে হতো সার্বিয়াকে। কিন্তু পাউলিনিয়ো ও চিয়াগো সিলভার গোলে সে আশা গুঁড়িয়ে যায়। ম্যাচ শেষে ব্রাজিলের সঙ্গে সার্বিয়ার ব্যবধান তুলে ধরেন ক্রাস্তাইচ।

“ব্রাজিলের গোল করার মুহূর্তটি ছাড়া প্রথমার্ধে আমরা এগিয়ে ছিলাম। এ মুহূর্তগুলোতেই খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত নৈপুণ্যটা বেরিয়ে আসে।”

“আমরা একটা আধুনিক ফুটবলের পরাশক্তির বিপক্ষে জয়ের জন্য নেমেছিলাম এবং আমরা সেটা পারিনি। তবে আমি আমাদের খেলোয়াড়দের তাদের সাহসী প্রচেষ্টা, সার্বিয়ার ব্যাজ এবং জার্সির প্রতি তাদের মনোভাবের জন্য অভিনন্দন জানাই।”

“আমরা ওপরে উঠে খেলেছি এবং দ্বিতীয়ার্ধে ঝুঁকি নেওয়ার চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু ব্রাজিলের মতো ফুটবল পরাশক্তিদের বিপক্ষে এমন একটি ম্যাচ খেলা খুবই কঠিন।”

 “ফুটবলে এটাই হয়। আমাদেরকে নিজেদের খেলার মান ওপরে তুলতে হবে। দ্বিতীয়ার্ধে আমরা আরও বেশি ঝুঁকি নিয়েছিলাম। আমরা আমাদের সুযোগ পেলাম কিন্তু আমরা শাস্তি পেলাম।”
ম্যাচের ৬৮তম মিনিটে নেইমারের কর্নারে সিলভা ব্যবধান দ্বিগুণ করার আগ মুহূর্তে ব্রাজিলকে ভীষণ চাপে রেখেছিল সার্বিয়া। কিন্তু ওই গোলের পর সার্বিয়াকে কোণঠাসা করে ফেলে তিতের দল। ক্রাস্তাইচ ব্রাজিলের রক্ষণের প্রশংসাও করেছেন।

“যখন আপনি রক্ষণ সামলাবেন, আপনাকে শৃঙ্খল হতে হবে। এবং এটা শুধু দেখিয়েছে আসলেই ব্রাজিল কতটা শক্তিশালী।”

গত অক্টোবরে দায়িত্ব পাওয়া ম্লাদেনের অধীনে রাশিয়ার আসরে খেলতে আসা সার্বিয়া গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচের দুটিতে হেরেছে; একটিতে জিতেছে। ৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে ‍তৃতীয় স্থানে থেকে ছিটকে গেছে। তবে কোচের দাবি, দল তাদের সবটুকুই দিয়েছে।

“ছেলেরা তাদের সবটুকু দিয়েছিল। আট বছর বড় টুর্নামেন্টে খেলতে না পারার পর বিশ্বকাপে এসে আমরা আমাদের সত্যিকারের জাতটা দেখাতে চেয়েছিলাম। আমাদের পারফরম্যান্সে আমরা তৃপ্ত হতে পারি।”

“আমরা জানি ব্রাজিল কঠিন প্রতিপক্ষ ছিল। যা হয়েছে, হয়ে গেছে। আমরা ২-০ গোলে হেরেছি। এটাই জীবন।”