‘এখানে শিশু হয়ে এসেছিলাম, পরিপূর্ণ মানুষ হয়ে ফিরে যাচ্ছি’

‘এখানে শিশু হয়ে এসেছিলাম, পরিপূর্ণ মানুষ হয়ে ফিরে যাচ্ছি’

লিওনেল মেসি, লুইস সুরায়েজ, পিকে এবং ফিলিপে কুতিনহোরা তখন মাঠের ভেতরে। ক্যাম্প ন্যু তখন খুঁজে বেরাচ্ছিল অধিনায়ক আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাকে।

৮ নম্বর জার্সি পরিহিত ইনিয়েস্তা যখন মাঠে ঢুকলেন তখন পুরো মাঠ দাঁড়িয়ে। ‘ইনিয়েস্তা, ইনিয়েস্তা’ হর্ষধ্বনিতে মাতোয়ারা পুরো স্টেডিয়াম। লেজার শোতে ক্যাম্প ন্যুয়ের গ্যালারিতে ইনিয়েস্তার মুখ। পুরো গ্যালারি সাজানো ইনিয়েস্তার নামে। আর বার্সেলোনা ও রিয়াল সোসিয়েদাদের খেলোয়াড়রা তখন মধ্যমাঠে। অপেক্ষায় কিংবদন্তি ইনিয়েস্তার।



প্রথমে বার্সেলোনাকে গার্ড অব অনার দেয় রিয়াল সোসিয়েদাদ। এরপর বার্সেলোনা ও রিয়াল সোসিয়েদাদের খেলোয়াড়রা মিলে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাতে গার্ড অব অনার দেয়। স্টেডিয়ামের ডিজে বলছিল, ‘ওয়ান লাস্ট টাইম ফর আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা।’ তাতেই যেন ফেটে পড়ে পুরো ক্যাম্প ন্যু। ৯০ হাজার উপস্থিত দর্শক একসঙ্গে বলে উঠেন ‘ইনিয়েস্তা, ইনিয়েস্তা।’

শৈশবের ক্লাবটির সঙ্গে ২২ বছরের সম্পর্ক চুকিয়ে ফেলার ঘোষণাটা আগেই দিয়েছিলেন ইনিয়েস্তা। কিংবদন্তি এই মিডফিল্ডার রোববার রাতে খেলেন শেষ ম্যাচ। ৮১ মিনিটে নিজের আর্মব্যান্ড খুলে পরিয়ে দেন লিওনেল মেসির হাতে।



বার্সার সিনিয়র দলে ইনিয়েস্তা খেলেছেন ১৪ মৌসুম। ক্লাব পর্যায়ে যে শিরোপাটা প্রতিটা ফুটবলারের একবার হলেও জয়ের স্বপ্ন থাকে, সেই চ্যাম্পিয়নস লিগ ইনিয়েস্তা জিতেছেন চারবার। লা লিগা শিরোপা আছে ৯টি। এ ছাড়া কোপা দেল রে, উয়েফা সুপার কাপ, স্প্যানিশ সুপার কাপ, ক্লাব বিশ্বকাপ শিরোপা তো আছেই।

তাইতো ক্লাব ছাড়ারও ক্যাম্প ন্যু তার হৃদয়ে থাকবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ইনিয়েস্তা, ‘আমি শুধু একটা কথা বলতে চাই, তোমাদের ছেড়ে যাচ্ছি সত্যি কিন্তু বলে যাচ্ছি তোমরা আমার হৃদয়ে সারাজীবন থাকবে। তোমাদেরকে সারাজীবন এই হৃদয়ে বয়ে বেড়াব। ২২টি বছর দারুণ সময় কাটিয়েছি। গর্ব হচ্ছে এমন একটি ক্লাবকে প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে। তোমাদের ভালোবাসা এবং সম্মানের জন্য ধন্যবাদ। আমি এখানে শিশু হয়ে এসেছিলাম এখন মানুষ হয়ে ফিরে যাচ্ছি।’



ম্যাচ শেষে স্টেডিয়ামে নিজের বক্তব্য প্রদানের পর সংবাদ সম্মেলনে যান ইনিয়েস্তা। এরপর ড্রেসিং রুমে গিয়ে শেষবার নিজের জায়গায় বসেন। পুরো ক্যাম্প ন্যু খালি হওয়ার পর আবার মাঠে ঢুকেন ইনিয়েস্তা। একান্তে সময় কাটান মধ্যমাঠে।

তথ্যসূত্র: মার্কা, ডেইলি মেইল