৪০০ উইকেটের ঠিকানায় ব্রড

৪০০ উইকেটের ঠিকানায় ব্রড

স্টুয়ার্ট ব্রডের লেগ স্টাম্পের বলটা ফ্লিক করলেন টম ল্যাথাম। স্কয়ার লেগে ক্যাচ নিলেন ক্রিস ওকস। ইংলিশ পেসার নাম লেখালেন ইতিহাসে।

ইংল্যান্ডের মাত্র দ্বিতীয় বোলার হিসেবে টেস্টে ৪০০ উইকেট নিলেন ব্রড। সব মিলিয়ে ১৫তম। আরেক ইংলিশ বোলার জেমস অ্যান্ডারসনের উইকেটসংখ্যা পাঁচশ পেরিয়েছে (৫২৫*)। 

মাইলফলক ছুঁতে ব্রডের প্রয়োজন ছিল ১ উইকেট। ৩৯৯ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আজ শুরু অকল্যান্ড টেস্টে খেলতে নামেন। নিজের দশম ওভারে ল্যাথামকে ফিরিয়ে ৪০০ উইকেটের ঠিকানায় পৌঁছে যান ৩১ বছর বয়সি ডানহাতি এই পেসার।

মাইলফলক ছোঁয়ার পর ব্রডের তেমন একটা উচ্ছ্বাস দেখা যায়নি। সতীর্থরা এসে তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। বল হাতে নিয়ে শুধু দর্শক অভিবাদনের জবাব দিয়েছেন ব্রড।

এমন দিনেই ব্রড মাইলফলক ছুঁলেন, এর ঘণ্টা তিনেক আগে টেস্টে নিজেদের ষষ্ঠ সর্বনিম্ন ৫৮ রানে অলআউট হয়েছে ইংল্যান্ড! দলের বাজে পারফরম্যান্সের পাশাপাশি ব্রডের সাম্প্রতিক সময়টাও ভালো যাচ্ছে না। তাই হয়তো ৪০০ উইকেট পাওয়ার পর তেমন একটা উচ্ছ্বাস দেখা যায়নি। 

২০১৭ সালটা ব্রডের ভালো যায়নি। বোলিং গড় ছিল ৩৬-এর ওপরে। ২০১৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জোহানেসবার্গে ১৭ রানে ৬ উইকেটের পর আর পাঁচ উইকেট পাননি ইনিংসে। এরপর কেটে গেছে ২৩ টেস্ট। তিন মাস আগে মেলবোর্নে ৫১ রানে পেয়েছিলেন ৪ উইকেট। ১৩ ইনিংস পর ৩ বা এর বেশি উইকেট পাওয়ার ঘটনা সেটি।

২০১৫ সালে ট্রেন্ট ব্রিজে ৩০০ উইকেটের মাইলফলক ছুঁয়েছিলেন ব্রড। ৩০০ থেকে ৪০০ ছুঁলেন ৩২ ম্যাচে। তার সবচেয়ে কম টেস্টে উইকেটের সেঞ্চুরি এটি। প্রথম ১০০ উইকেট পেতে লেগেছিল ৩৫ টেস্ট।