যেভাবে ধসে পড়ল ইংল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপ

যেভাবে ধসে পড়ল ইংল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপ

 অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ড অলআউট হয়েছে মাত্র ৫৮ রানে। টেস্টে এটি ইংলিশদের ষষ্ঠ সর্বনিম্ন রান। চলুন দেখে নেওয়া যাক কীভাবে ধসে পড়ল ইংল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপ।

.২- ৬/১, অ্যালিস্টার কুক ক: ল্যাথাম ব: বোল্ট
ইনিংসের ২৬তম বলে ইংল্যান্ডের ধসের শুরু। বাঁহাতি পেসার ট্রেন্ট বোল্টের বলে এজ হয়ে দ্বিতীয় স্লিপে টম ল্যাথামকে ক্যাচ দেন প্রাক্তন ইংলিশ অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক (৫)।

.২ ৬/২, জো রুট ব: বোল্ট
নিজের পরের ওভারে এসে বোল্ট নিয়েছেন তার দ্বিতীয় উইকেট। তার বলের জবাব খুঁজে পাননি জো রুট। রুটের ব্যাট ও প্যাডের ফাঁক দিয়ে বল ভেঙে দেয় স্টাম্প। ৬ বল খেলে ডাক মারেন ইংলিশ অধিনায়ক।

.১ ১৬/৩, ডেভিড মালান ক: ওয়াটলিং ব: বোল্ট
অ্যাশেজে বেশ কয়েকবার ইংল্যান্ডকে বিপদ থেকে উদ্ধার করেছিলেন ডেভিড মালান। এবার তিনি পারেননি (২)। বোল্টের বলে হন এজ, প্রথম স্লিপের সামনে ঝাঁপিয়ে পড়ে দারুণ এক ক্যাচ নেন উইকেটকিপার বিজে ওয়াটলিং।


.৪ ১৮/৪, মার্ক স্টোনম্যান ক: ওয়াটলিং ব: সাউদি
আরো একটি এজ, ওয়াটলিংয়ের আরো একটি ক্যাচ। এবার সাউদির বলে ফেরেন মার্ক স্টোনম্যান (১১)।

১০.৩ ১৮/৫, বেন স্টোকস ব: বোল্ট
ছয় মাস পর টেস্টে ফিরে ভালো করতে পারেননি বেন স্টোকসও। বোল্টের অফ স্টাম্পের বল ছেড়ে দিতে চেয়েছিলেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান, উড়ে যায় অফ স্টাম্প। ৮ বলে শূন্য করে ফেরেন স্টোকস। 

১১.২ ১৮/৬, জনি বেয়ারস্টো ক অ্যান্ড ব: সাউদি
সাউদির বলে বোলারকে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জনি বেয়ারস্টো। উইকেটকিপার এই ব্যাটসম্যানও রানের খাতা খুলতে পারেননি।

১২.৬ ২৩/৭, ক্রিস ওকস ব: বোল্ট
বোল্টের দারুণ এক ইন-সুইঙ্গারে বোল্ড ক্রিস ওকস (৫)। ওকসকে ফিরিয়ে বোল্ট পূর্ণ করেন পাঁচ উইকেট, নিজের মাত্র সপ্তম ওভারে!


১৩.৪ ২৩/৮, মঈন আলী ব: সাউদি
অ্যাশেজের ব্যর্থতা থেকে বের হতে পারেননি মঈন। সাউদির ইয়র্কারের জবাব খুঁজে পাননি বাঁহাতি ব্যাটসম্যান, বোল্ড (০)। ইংল্যান্ডকে তখন টেস্টের সর্বনিম্ন রানের (২৬) বিশ্ব রেকর্ড চোখ রাঙাচ্ছে।

১৫.৪ ২৭/৯, স্টুয়ার্ট ব্রড ক: উইলিয়ামসন ব: সাউদি
এই উইকেটে যতটা না কৃতিত্ব বোলার সাউদির, তার চেয়ে বেশি কৃতিত্ব কেন উইলিয়ামসনের। গালিতে বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে এক হাতে দুর্দান্ত এক ক্যাচ নেন কিউই অধিনায়ক। ডাক মেরে ফেরেন ব্রড।

২০.৪ ৫৮/১০ জেমস অ্যান্ডারসন ক: নিকোলস ব: বোল্ট
শেষ উইকেটে অ্যান্ডারসনের সঙ্গে ৩১ রানের জুটিতে ইংল্যান্ডকে তাদের সর্বনিম্ন রানের (৪৫) লজ্জা থেকে বাঁচান ক্রেইগ ওভারটন (৩৩*)। শর্ট বলে অ্যান্ডারসনকে পয়েন্টে হেনরি নিকোলসের ক্যাচ বানিয়ে ইংল্যান্ডের ইনিংসের ইতি টানেন বোল্ট।