সেঞ্চুরিতে ব্র্যাডম্যান-গাভাস্কার-লারাদের পাশে মুমিনুল

সেঞ্চুরিতে ব্র্যাডম্যান-গাভাস্কার-লারাদের পাশে মুমিনুল

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সবশেষ টেস্টেই তিনি ছিলেন না। তাকে দিয়ে ‘পানি টানার’ কাজ করিয়েছিলেন চন্ডিকা হাথরুসিংহে। প্রয়োজনে করেছিলেন ফিল্ডিং। সেই তিনিই দলে জায়গায় পেয়ে অসাধারণ এক কীর্তি গড়লেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহের দল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে এক টেস্টে দুই ইনিংসে সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছেন মুমিনুল হক। চলমান চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে মুমিনুল হক করেছিলেন ১৭৬ রান। আজ ম্যাচের পঞ্চম দিনে দ্বিতীয় ইনিংসেও পেলেন সেঞ্চুরির স্বাদ।

তিন অঙ্ক থেকে ৩০ রানে পিছিয়ে থেকে মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতিতে গিয়েছিলেন মুমিনুল। বিরতি থেকে ফিরে নিজের সহজাত ব্যাটিংয়ে সহজেই ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরির মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলেন বাঁহাতি এ ওপেনার। ১৫৪ বলে তিন অঙ্ক ছুঁয়েছেন ৫ চার ও ২ ছক্কায়।  

১০৫ নম্বর টেস্ট খেলছে বাংলাদেশ। ২০০০ সালে টেস্ট অভিষেক হওয়ার পর বাংলাদেশ পেয়েছে ৪৯ সেঞ্চুরি। এর মধ্যে প্রথম ইনিংসে রয়েছে ৩০টি। কিন্তু কোনো ম্যাচে এক ব্যাটসম্যানের কাছ থেকে ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি পায়নি বাংলাদেশ। আজ সেই আক্ষেপটাই দূর করলেন ‘বাংলাদেশের ব্র্যাডম্যান’।

এক টেস্টে দুই ইনিংসে সেঞ্চুরির রেকর্ড আছে ৮৩টি। এলিট এ ক্লাবেই রয়েছেন স্যার ডন ব্র্যাডম্যান, হানিফ মোহাম্মদ, স্যার গ্যারি সোবার্স, সুনীল গাভাস্কার, জাভেদ মিঁয়াদাদ, রিকি পন্টিং, অরভিন্দ ডি সিলভা, অ্যালন বোর্ডার, ইনজামাম-উল-হক ও বিরাট কোহলির মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা। ঘরের মাঠে দুই সেঞ্চুরি তুলে আজ এলিট ক্লাবে প্রবেশের টিকিট পেলেন টেস্টে বাংলাদেশের সেরা এ ক্রিকেটার।

সেঞ্চুরির আগেই মুমিনুল গড়েছেন আরেক রেকর্ড। টেস্টে এক ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটি তারই দখলে। ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল তুলে নেওয়া ম্যাচে তামিম খুলনায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে করেছিলেন ২৩১ রান (২৫ ও ২০৬)।

তামিম বলেছিলেন, মুমিনুলের এ টেস্টে প্রমাণের অনকে কিছু ছিল।’ প্রথম ইনিংসে ১৭৬ রান সেই প্রমাণের প্রথম অধ্যায়। দ্বিতীয় ইনিংসের সেঞ্চুরি সাফল্যের মুকুটে দিয়েছে নতুন এক পালক। হাথরুসিংহে যাওয়ার পর পরই নতুন করে মুমিনুলের আবিস্কার।

উইকেটের চারপাশে দারুণ সব শট, ব্যাটিংয়ে লড়াকু মানসিকতা, বড় ইনিংস খেলার ঐকান্তিক ইচ্ছা মুমিনুলকে নিয়ে যাচ্ছে দূর থেকে বহুদূরে। রানের পাগলা ঘোড়া মাত্রই চলা শুরু হল। অবিশ্বাস্য সব কীর্তি গড়েই ক্ষান্ত হবেন মুমিনুল।

রেকর্ড কর্নার :

 

  • এক টেস্টে দুই ইনিংসে সেঞ্চুরির রেকর্ড মুমিনুলের।
  • সর্বপ্রথম এ ক্লাবে প্রবেশ করেন ওয়ারেন বার্ডসলি, ১৯০৯ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।
  • সর্বোচ্চ তিনবার এমন কীর্তি গড়েছেন সুনীল গাভাস্কার, রিকি পন্টিং এবং ডেভিড ওয়ার্নার।
  • দু’বার করে করেছেন ৮ ব্যাটসম্যান।
  • মুমিনুলের আগে সর্বশেষ এ কীর্তি গড়েছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের শাই হোপ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৭ সালে।