সানজামুলের প্রথম উইকেট

সানজামুলের প্রথম উইকেট

চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিনে ব্যাট করছে শ্রীলঙ্কা।

স্কোর: শ্রীলঙ্কা ৬৯০/৭ (১৯০ ওভার)।

সানজামুলের প্রথম উইকেট: ৪১ ওভারে ১৪৩ রান দিয়ে উইকেটশূন্য। মনে হচ্ছিল, টেস্টের অভিষেক ইনিংসে বুঝি উইকেটই পাওয়া হবে না সানজামুল ইসলামের! অবশেষে অপেক্ষা ফুরাল। ৪২তম ওভারে পেলেন প্রথম উইকেটের স্বাদ। বাঁহাতি স্পিনারের বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন দিলরুয়ান পেরেরা (৩২)। রিভিউ নিয়েও বাঁচতে পারেননি। শ্রীলঙ্কার স্কোর তখন ৭ উইকেটে ৬৮৭।  

আক্রমণাত্মক ডিকভেলাকে ফেরালেন মিরাজ: আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ফিফটি করা নিরোশান ডিকভেলাকে ফিরিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। অফ স্পিনারের লেংথ বলে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে উইকেটকিপার লিটন দাসকে ক্যাচ দিয়েছেন ডিকভেলা (৬১ বলে ৬২)। ইনিংসে এটি মিরাজের তৃতীয় উইকেট। শ্রীলঙ্কার স্কোর তখন ৬ উইকেটে ৬৬৩।

যেখানে তাইজুলই প্রথম: প্রথম বাংলাদেশি বোলার হিসেবে টেস্টের এক ইনিংসে দুইশ রান দিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। ৬৪ ওভারে রান দেওয়ার ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন বাঁহাতি এই স্পিনার। এর আগে সর্বোচ্চ ১৮১ রান দিয়েছিলেন মোহাম্মদ রফিক ও সোহাগ গাজী। ২০০৭ সালে ঢাকায় ভারতের বিপক্ষে ৪৫ ওভারে ১৮১ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন রফিক। ২০১৪ সালে চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪৮ ওভারে ১৮১ রানে এক উইকেট পেয়েছিলেন সোহাগ। চার বছর পর একই মাঠে একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে রফিক-সোহাগকে ছাড়িয়ে গেলেন তাইজুল। দুইশ রান দেওয়ার আগে তিনিও ২ উইকেট পেয়েছেন।

ডিকভেলার ফিফটি: ব্যক্তিগত ৪৯ থেকে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে চার হাঁকিয়ে ফিফটি পূর্ণ করেছেন নিরোশান ডিকভেলা। ৪৭ বলে ফিফটি করতে ৭টি চার মারেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। এটি তার অষ্টম টেস্ট ফিফটি।

রিভিউ নিয়ে বেঁচে গেলেন পেরেরা: মেহেদী হাসান মিরাজের বলে দিলরুয়ান পেরেরাকে এলবিডব্লিউ দিয়েছিলেন আম্পায়ার। পেরেরা চান রিভিউ। রিপ্লেতে দেখায় যায়, বল স্টাম্প মিস করত। তাতে পাল্টে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত। ৪ রানে বেঁচে যান পেরেরা।

লাঞ্চের পরই তাইজুলের আঘাত: প্রথম সেশনে ৩০ ওভারে বাংলাদেশ নিতে পেরেছিল মাত্র এক উইকেট। লাঞ্চ বিরতির পর তৃতীয় বলেই বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। বাঁহাতি স্পিনারের বলে বোল্ড হয়ে গেছেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল (৮৭)। শ্রীলঙ্কার স্কোর তখন ৫ উইকেটে ৬১৩। লিড ১০০ রানের।

প্রথম সেশনে এক উইকেট: চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনে শ্রীলঙ্কার মাত্র এক উইকেট নিতে পেরেছে বাংলাদেশ। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে আউট হয়েছেন সেঞ্চুরিয়ান রোশেন সিলভা। তার উইকেট হারিয়ে প্রথম সেশনে ৩০ ওভারে শ্রীলঙ্কা তুলেছে ১০৮ রান। লাঞ্চ বিরতিতে সফরকারীদের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৬১২ রান। লিড ৯৯ রানের। দিনেশ চান্দিমাল ৮৭ ও নিরোশান ডিকভেলা ২৯ রানে অপরাজিত আছেন।

জহুর আহমেদে নতুন রেকর্ড: প্রথম দল হিসেবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টেস্টে এক ইনিংসে ৬০০ রান করেছে শ্রীলঙ্কা। লঙ্কানরা ছাড়িয়ে গেছে ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের ৬ উইকেটে করা ৫৯৯ রানকে। এই মাঠে সর্বোচ্চ ছয় ইনিংসের তালিকায় নেই স্বাগতিক বাংলাদেশ। এই ম্যাচের প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৫১৩ রান আছে তালিকায় সপ্তম স্থানে।



ছয়শ ছাড়াল শ্রীলঙ্কা: তাইজুল ইসলামের করা ইনিংসের ১৬৭তম ওভারে টানা তিন বলে তিন চার মারলেন নিরোশান ডিকভেলা। এই তিন চারে ছয়শ ছাড়াল শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ। ১৬৭ ওভারে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৬০২। 

বিরতির পরই মিরাজের আঘাত: প্রথম ঘণ্টার পানি পানের বিরতির পর চতুর্থ বলেই শ্রীলঙ্কান শিবিরে আঘাত হেনেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। অফ স্পিনারের অফ স্টাম্পের বল কাট করতে গিয়ে উইকেটকিপার লিটন দাসকে ক্যাচ দিয়েছেন রোশেন সিলভা। ২৩০ বলে ৬ চার ও এক ছক্কায় ১০৯ রান করেছেন রোশেন। তার বিদায়ে ভেঙেছে ১৩৫ রানের চতুর্থ উইকেট জুটি। শ্রীলঙ্কার স্কোর তখন ৪ উইকেটে ৫৫০। দিনেশ চান্দিমালের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন নিরোশান ডিকভেলা।

প্রথম ঘণ্টায় উইকেটশূন্য বাংলাদেশ: চতুর্থ দিনের প্রথম ঘণ্টায় শ্রীলঙ্কার কোনো উইকেট ফেলতে পারেনি বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কা ১৭ ওভারে তুলেছে ৪৬ রান। সেঞ্চুরি পেয়েছেন রোশেন সিলভা, দিনেশ চান্দিমাল পেয়েছেন ফিফটি। দুজনের চতুর্থ উইকেট জুটি ছাড়িয়েছে একশ। শ্রীলঙ্কা ছুঁয়েছে সাড়ে পাঁচশ। পানি পানের বিরতিতে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৫৫০ রান। রোশেন ১০৯ ও চান্দিমাল ৬১ রানে অপরাজিত আছেন। শ্রীলঙ্কার লিড ৩৭।

চান্দিমালের ফিফটি: আগের ওভারে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন রোশেন সিলভা। পরের ওভারে ফিফটি করলেন দিনেশ চান্দিমাল। ব্যক্তিগত ৪৯ থেকে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে সিঙ্গেল নিয়ে মাইলফলক স্পর্শ করেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক।

 
রোশেনের প্রথম সেঞ্চুরি: গত ডিসেম্বরে দিল্লিতে অভিষেক টেস্টের প্রথম ইনিংসে মেরেছিলেন ডাক। ভারতের বিপক্ষে সে ম্যাচে দ্বিতীয় ইনিংসে করেছিলেন অপরাজিত ৭৪। নিজের দ্বিতীয় টেস্টেই আজ প্রথম সেঞ্চুরি পেয়ে গেলেন রোশেন সিলভা। ৯৫ থেকে তাইজুল ইসলামের পরপর দুই বলে ২ ও ৩ রান নিয়ে তিন অঙ্ক স্পর্শ করেন ২৯ বছর বয়সি এই ব্যাটসম্যান।

শ্রীলঙ্কার লিড: বাংলাদেশের চেয়ে ৯ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিন শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কা। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৫১৩ রান শ্রীলঙ্কা ছাড়িয়ে গেছে দিনের তৃতীয় ওভারেই। সতর্কভাবে ব্যাটিং শুরু করেছেন রোশেন সিলভা ও দিনেশ চান্দিমাল। মুস্তাফিজুর রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজকে দিয়ে বোলিং শুরু করিয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

কোথায় থামবে শ্রীলঙ্কা?: প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের রান পাহাড়ের জবাবটা শ্রীলঙ্কাও দিচ্ছে রানের পাহাড় গড়ে। তৃতীয় দিনে লঙ্কানরা তুলেছে ৩১৭ রান, মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে। বড় সেঞ্চুরি পেয়েছেন কুশল মেন্ডিস (১৯৬) ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা (১৭৩)। আজ চতুর্থ দিনে সেঞ্চুরির পথে আছেন রোশেন সিলভাও (৮৭*)। শ্রীলঙ্কার তৃতীয় দিনের ৩ উইকেটে ৫০৪ রানের ইনিংসটা কোথায় গিয়ে থামে, সেটাই এখন দেখার।

লিডের পথে শ্রীলঙ্কা: প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৫১৩ রানের জবাবে তৃতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৫০৪ রান। রোশেন সিলভা ৮৭ ও দিনেশ চান্দিমাল ৩৭ রান নিয়ে শনিবার চতুর্থ দিন শুরু করেছেন। ৭ উইকেট হাতে রেখে শ্রীলঙ্কা পিছিয়ে আর মাত্র ৯ রানে। নিশ্চিতভাবেই প্রথম ইনিংসে বড় লিড পেতে যাচ্ছে সফরকারীরা।