২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিমানের মুনাফা ২৭২ কোটি

২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিমানের মুনাফা ২৭২ কোটি

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী বলেছেন, সদ্য সমাপ্ত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিমানের নিট মুনাফা হয়েছে ২৭২ কোটি টাকা। বুধবার দুপুরে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, হজসহ সদ্য সমাপ্ত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিমানের মোট আয় হয়েছে পাঁচ হাজার ৭৯১ কোটি টাকা। সব মিলে বিমানের ব্যয় হয়েছে পাঁচ হাজার ৫১৯ কোটি টাকা। নিট মুনাফা হয়েছে ২৭২ কোটি টাকা।

তিনি জানান, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন-বিপিসি'র বকেয়া পরিশোধ করেছে ৫৩ কোটি টাকা। এছাড়া ফুয়েল সংগ্রহ করেছে নগদ সাড়ে ৮০০ কোটি টাকার।

সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকিট বিক্রিতে সম্পূর্ণ অটোমেশন পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। এছাড়া যাত্রীসেবার মানোন্নয়নে বেশকিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের প্রথম ব্যাগেজ ফ্লাইট অবতরণের ১৬ মিনিটের মধ্যে এবং শেষ ব্যাগেজ ৬০ মিনিটের মধ্যে প্রাপ্তি নিশ্চিত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, একই ফ্লাইটে যাত্রীর ব্যাগেজ না এলে সংশ্লিষ্ট এয়ারলাইন্স ওই যাত্রীর ব্যাগেজ বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। নির্ধারিত সময়ে ফ্লাইট উড্ডয়ন নিশ্চিতের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও জনবল নিয়োগ এবং তদারকি বৃদ্ধি করা হয়েছে। এতে বিমানের ভাবমূর্তি বৃদ্ধি পেয়েছে পাশাপাশি আয়ও বেড়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হক, বিমান পরিচালনা পর্ষদ চেয়ারম্যান ও সাবেক এয়ার ভাইস মার্শাল ইনামুল বারী, বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ক্যাপ্টেন ফারহাত হাসান জামিল, যুগ্ম-সচিব জনেন্দ্র নাথ সরকার, বিমান পরিচালক (প্রশাসন) জিয়াউদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।