হার্দিক পান্ডিয়াও খেলবেন না বাংলাদেশের বিপক্ষে

হার্দিক পান্ডিয়াও খেলবেন না বাংলাদেশের বিপক্ষে

ব্যক্তিগত কারণে ক্রিকেট থেকে দূরে রয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি, চোটের কারণে মাঠের বাইরে জাসপ্রিত বুমরাহও। ফলে বাংলাদেশের বিপক্ষে ঘরের মাঠে আসন্ন সিরিজে এ দুই ক্রিকেটারের অনুপস্থিতি নিশ্চিত হয়েছিল আগেই।

এবার এ তালিকায় যুক্ত হলেন ডানহাতি পেস বোলিং অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া। বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে থাকতে পারবেন না ভারতের এক নম্বর অলরাউন্ডার। পিঠের চোটের কারণে লম্বা সময় মাঠের বাইরেই থাকতে হবে তাকে।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সুত্রমতে খুব শীঘ্রই নিজের ইনজুরির ব্যাপারে উন্নত পরীক্ষানিরীক্ষার জন্য যুক্তরাজ্যে উড়াল দেবেন হার্দি। গত বছরের সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ খেলার সময় সর্বপ্রথম এ চোটের ব্যাপারে টের পান হার্দিক। যা থেকে থেকে যন্ত্রণা দিচ্ছিল তাকে। তাই এবার উন্নত চিকিৎসার শরণাপন্ন হচ্ছেন এ অলরাউন্ডার।

বিসিসিআইয়ের এক মুখপাত্র ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে বলেছেন, ‘গত এশিয়া কাপের পর যে ডাক্তারের অধীনে প্রাথমিক পরীক্ষানিরীক্ষা হয়েছিল, যুক্তরাজ্যে তার কাছেই যাবে হার্দিক। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে যে হার্দিক খেলবে না তা নিশ্চিত। তবে মাঠে ফিরতে কয়দিন সময় লাগবে, তা এখনই বলা সম্ভব নয়। সে যুক্তরাজ্য থেকে ফেরার পরই কিছু বলা যাবে।’

এমনও হতে পারে যুক্তরাজ্যের ডাক্তারের পরামর্শে পিঠের অস্ত্রোপচার লাগতে পারে হার্দিকের। সেক্ষেত্রে অন্তত পাঁচ মাস মাঠের বাইরে থাকতে হবে এ তারকা অলরাউন্ডারকে। আর এমনটা হলে ২০২০ সালের আইপিএলের ঠিক আগে দিয়ে হয়তো মাঠে ফেরার জন্য প্রস্তুত হতে পারবেন হার্দিক।

আগামী নভেম্বরে ভারত সফরে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুইটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। সফর শুরু হবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। দিল্লির অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে ৩ নভেম্বর মাঠে গড়াবে প্রথম টি-টোয়েন্টি।

এরপর ১৪ নভেম্বর দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে মুখোমুখি হবে ভারত-বাংলাদেশ। চোটের কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে বুমরাহর সঙ্গে হার্দিকও খেলতে পারবেন না।