রাজধানীতে ৪ বছরের শিশু ও গোপালগঞ্জে শাশুড়ি-পুত্রবধূ নিহত

সড়কে ঝরলো তিন সেনাসহ ৮ প্রাণ

সড়কে ঝরলো তিন সেনাসহ ৮ প্রাণ

করতোয়া ডেস্ক :  সারদেশে  সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে নোয়াখালীতে তিন সেনা সদস্য, রাজধানীতে এক শিশু ও গোপালগঞ্জে শাশুড়ি-পুত্রবধূ নিহত হয়েছে। স্টাফ রিপোর্টার ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।রাজধানীর মুগদা এলাকায় একটি রিকশার ধাক্কায় শিমন (৪) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মুমুর্ষূ অবস্থায় শিমনকে তার মা কলি ও বড় ভাই ইমন উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক বিকেল ৪টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত শিমন ফরিদপুর বোয়ালমারী উপজেলা বাদিতীর গ্রামের গাড়িচালক লিটন মিয়ার ছেলে  এবং চার সন্তানের মধ্যে সে তৃতীয়। বর্তমানে মুগদা মান্ডা শাহা-আলমের গলিতে একটি বাসায় পরিবারের সঙ্গে থাকতো। নিহত শিশুটির মা কলি  জানান, দুপুরে শিমন বাসা থেকে কিছু দূরে মেইন রাস্তায় গেলে একটি রিকশা তাকে ধাক্কা দেয়। খবর পেয়ে তিনিসহ তার বড়ছেলে দ্রুত শিমনকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থা অবনিত হলে ঢামেকে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা সঙ্গে সঙ্গে তার বঙ ভাই ইমন কোনোভাবেই মানতে পারছে না তার ছোট ভাই মারা গেছে। মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ম অনুযায়ী মরদেহ মর্গে রাখতে হয়। হাসপাতালে তার মাকে নিয়ে এদিক-সেদিক ছুটছেন। তবুও সে মর্গে তার ছোট ভাইয়ের মরদেহ রাখতে চাচ্ছে না। ঢাকা মেডিকেল পুলিশ বক্সের (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া  ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নোয়াখালী : নোয়াখালী     
সুবর্ণচর উপজেলার সোনাপুর-চেয়ারম্যান ঘাট সড়কে ২নং চরবাটা ইউনিয়নের তোতার বাজার এলাকায় সেনাবাহিনীর গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৩ সেনাসদস্য নিহত হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার বিকেল ৩টায় ক্যাম্পে যাওয়ার পথে ১১ সেনাসদস্য বহনকারী সেনাবাহিনীর জিপ নং-৭৩৫/০৫৮৭২২ গাড়িটি একটি ট্রাককে ওভারটেক করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে ঘটনাস্থলেই সৈনিক মামুন, সৈনিক ফিরোজ এবং ড্রাইভার ফয়েজ নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয় আরো ৮ সেনাসদস্য। আহতদের নোয়াখালী জেনারেল হাসাপাতালে এবং কুমিল্লা সিএমএইচ এ ভর্তি করা হয়েছে। সুবর্নচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ডাক্তার জানান, আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাহেদ উদ্দিন দুর্ঘটনা এবং নিহত ৩ জনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। শেরপুর (বগুড়া) :বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় একটি ইটবোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে ট্রাকের হেলপার আমিরুল ইসলাম (৩৫) নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ট্রাকের শ্রমিক আব্দুস সামাদ। নিহত আমিরুল ইসলাম উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের রনবীরবালা গ্রামের নজিব উদ্দিনের  ছেলে।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার শেরপুর-ধুনট আঞ্চলিক সড়কের বোয়ালকান্দি এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানান, ধুনট থেকে শেরপুরের উদ্দেশ্যে একটি ইটবোঝাই ট্রাক আসছিলো। পথিমধ্যে উক্ত স্থানে পৌঁছুলে চালক ট্রাকের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে ট্রাকটি সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ট্রাকের হেলপার আমিরুল ইসলাম নিহত হন। আহত হন শ্রমিক আব্দুস সামাদ। খবর পেয়ে শেরপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে শেরপুর থানায় পাঠিয়ে দেয়। একইসঙ্গে আহত আব্দুস সামাদকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রহমান নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনাকবলিত ট্রাকটি ঘটনাস্থলে রয়েছে। এছাড়া চালক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলে জানান তিনি।   

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় মোটর সাইকেল ও নসিমনের সংঘর্ষে শাশুড়ি ও পুত্রবধূ নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও একজন। গতকাল শুক্রবার দুপুরে কোটালীপাড়া-রাজৈর সড়কের কোটালীপাড়া উপজেলার ছিকটিবাড়ি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন কোটালীপাড়া উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের ভুতুরিয়া গ্রামের মাসুদুর রহমানের স্ত্রী মুর্শীদা বেগম (৫৫) এবং তার ছেলে নাঈম মোল্লার স্ত্রী মানসুরা বেগম (২০)।কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ কামরুল ফারুক জানান, মোটরসাইকেল যোগে নাঈম মোল্লা তার মা ও স্ত্রীকে নিয়ে মোল্লাহাট যাচ্ছিলেন। এ সময় তারা ছিকটিবাড়ি এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিকে থেকে আসা রাধাগঞ্জগামী একটি নসিমনের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে তার মা মুর্শীদা বেগম ও স্ত্রী মানসুরা বেগম নিহত হন। এতে মোটরসাইকেল চালক নাঈম মোল্লা (২৮) মারাত্মকভাবে আহত হন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার করে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করে। আহত নাঈমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এবং নিহতদের ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে মশিপুর কবরস্থানের কাছে বগুড়া-নগরবাড়ি মহাসড়কে গতকাল শুক্রবার দুপুরে সিমেন্টবাহী ট্রাকের ধাক্কায় গিয়াস উদ্দিন (৬০) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন।

নিহত গিয়াস উদ্দিনের বাড়ি শাহজাদপুর পৌর এলাকার আইগবাড়ি শক্তিপুর গ্রামে। তিনি বিজিবির অবসরপ্রাপ্ত হাবিলদার ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও শাহজাদপুর থানা পুলিশ জানায়, তিনি নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল যোগে তালগাছি একটি ইটভাটায় ইট কিনতে যাচ্ছিলেন। মশিপুর কবরস্থানের কাছে পৌঁছালে বাঘাবাড়ি থেকে ছেড়ে আসা বগুড়াগামী  একটি সিমেন্টবাহী ট্রাক পিছনদিক থেকে ধাক্কা দিলে তিনি সড়কের উপর ছিটকে পরেন। এতে তার মাথায় ও বুকে আঘাত লাগে। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। অপরদিকে ঘটনার পর সিমেন্টবাহী ট্রাক দ্রুত পালিয়ে যায়। শাহজাদপুর থানার এসআই নুরুল হুদা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।