স্মার্টফোন ব্যবহারে সতর্কতা

স্মার্টফোন  ব্যবহারে  সতর্কতা

তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক : তথ্য প্রযুক্তির যুগে নিত্যদিনের অন্যতম সঙ্গী স্মার্টফোন। এই যন্ত্রটি ছাড়া আমাদের এক মুহূর্তও চলে না। কিন্তু সারাক্ষণ ফোন সঙ্গে রাখার কারণে ফোনের থেকে বেরিয়ে আসা রেডিয়েশন প্রবেশ করছে আমাদের শরীরে। সে কারণে নানা রকম অসুখে আক্রান্ত হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। কিন্তু কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করলে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচা সম্ভব। চলুন জেনে নেই এ পরিস্থিতি থেকে বাঁচবেন যেভাবে। * মোবাইল ফোনটিকে যতটা সম্ভব শরীরের থেকে দূরে রাখুন।
* বেশিক্ষণ কথা বলতে হলে ল্যান্ডলাইন ব্যবহার করুন।
* যখন দরকার নেই তখন ফোনটিকে বন্ধ করে দিন বা এরোপ্লেন মুডে রাখুন।
* কথা বলার সময় স্পীকার বা হেডফোনের ব্যবহার করুন।
* চার্জ দেয়ার সময় ফোন বন্ধ করে রাখুন। * লো ব্যাটারি থাকলে ফোনে কথা না বলাই শ্রেয়।
প্রসঙ্গত, প্যান্টের পেছনের পকেটে ফোন রাখার কারণে বেড়ে যেতে পারে পায়ের ব্যথা। ফোন সামনের পকেটে রাখলে পুরুষের স্পার্ম কাউন্ট কমে যায়। শার্টের পকেটে ফোন রাখলে হার্টের ক্ষতি হতে পারে। কারণ ফোন থেকে যে রেডিয়েশন বের হয় তা হার্টের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।
এছাড়া রান্নাঘর বা আগুনের কাছাকাছি ফোন রাখলে ফোন ব্লাস্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই ফোন রাখার সময় আগুন বা তাপ লাগতে পারে এমন কিছু থেকে দূরে রাখা উচিত।  
শিশুর সামনে ফোন রাখাও বিপদজনক। বাচ্চারা বেশি ফোন নিয়ে খেলা করলে তাদের হাইপারঅ্যাকটিভিটি, ডিফিসিট ডিসঅর্ডার-এর মতো অসুখ দেখা দিতে পারে।