‘স্বামীকে পিটিয়ে মেরে’ শিশু সন্তানকে নিয়ে স্ত্রীর পলায়ন

‘স্বামীকে পিটিয়ে মেরে’ শিশু সন্তানকে নিয়ে স্ত্রীর পলায়ন

রাজধানীর কাফরুলে এক ব্যক্তিকে ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে পিটিয়ে হত্যার পর শিশু সন্তানকে নিয়ে স্ত্রী পালিয়ে গেছেন বলে পুলিশ ও স্বজনরা জানিয়েছেন।

রিমা নামে ওই গৃহবধূ শনিবার সকালে ঘুমন্ত স্বামী বাবুল আক্তারকে (৩৫) ছেলের ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে মাথায় আঘাত করে বলে নিহতের স্বজনরা জানান।

এ সময় ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে বাবুলের মা সোনেকা বেগমও (৬০) আহত হন বলে তার বাবা রিফাজ উদ্দিন জানিয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে স্টেনো টাইপিস্ট রিফাজ জানান,  কাফরুলের ১৩ নম্বর সেকশনের ৯ নম্বর সড়কের বি ব্লকের ২২/২ হোল্ডিংয়ে তাদের বাসা।

“সকাল ৯টার দিকে হঠাৎ করে ছেলের কাঠের ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে বাবুলের মাথায় আঘাত করে রিমা। এ সময় আমার স্ত্রী এগিয়ে গেলে তাকেও আঘাত করা হয়। এক পর্যায়ে ৫ বছরের একমাত্র ছেলেকে নিয়ে দ্রুত বাসা থেকে বের হয়ে যায় রিমা।”

আহত বাবুল ও তার মা সোনেকাকে প্রথমে আগারগাঁও নিউরোসায়েন্স ইনস্টিটিউটে এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেই বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে বাবুল মারা যায়।

এই ঘটনার পর রিমাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলে কাফরুল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুকুল আলম জানিয়েছেন।

বাবুলের বাবা বলেন, “কী কারণে ছেলেকে পুত্রবধূ হত্যা করল তা পরিবারের কেউ কিছু বুঝতে পারছি না।”

তাদের গ্রামের বাড়ি পাবনা জেলার সাঁথিয়া উপজেলার আফতাব নগর গ্রামে।