স্বাচ্ছন্দ্যের ঈদযাত্রা

স্বাচ্ছন্দ্যের ঈদযাত্রা

শিডিউল বিপর্যয় ও কোনো ধরনের অভিযোগ ছাড়াই রেলের ঈদ সেবা শুরু হয়েছে। ট্রেনে ঝামেলা ছাড়াই বাড়ি ফিরতে পারছেন যাত্রীরা। আর স্বাচ্ছন্দ্যের ঈদযাত্রায় যাত্রীরা বেশ খুশি।


বুধবার (০৭ আগস্ট) সকালে ঈদুল আজহা উপলক্ষে রেলের বিশেষ সেবা শুরু হয়। যাত্রার প্রথম দিনে কমলাপুর রেলস্টেশনে তেমন ভোগান্তি নেই। শুধুমাত্র চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস এক ঘণ্টা ১১ মিনিট দেরি করে ৯টা ১১ মিনিটে কমলাপুর রেলস্টেশন ছেড়ে গেছে। সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত নয়টি আন্তঃনগর ট্রেন ছেড়ে গেছে।

সকাল ৬টায় রাজশাহীগামী ধুমকেতু এক্সপ্রেস নির্ধারিত সময়ে কমলাপুর ছেড়ে গেছে। এছাড়া খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ৬টা ২০ মিনিটে, সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ৬টা ৩৫ মিনিটে, চট্টগ্রামগামী সোনারবাংলা এক্সপ্রেস ৭টায়, কিশোরগঞ্জগামী এগারসিন্ধুর প্রভাতী সোয়া ৭টায়, দেওয়ানগঞ্জ বাজারগামী তিস্তা এক্সপ্রেস সাড়ে ৭টায় ও চট্টগ্রামগামী মহানগর প্রভাতী সকাল পৌনে ৮টায় ছেড়ে গেছে। এছাড়া সকাল ৯টায় রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন ছাড়ার কথা থাকলেও কিছুটা দেরি করে ৯টা ৪০ মিনিটে ছেড়ে গেছে।

রেল কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বুধবার আন্তঃনগর ও মেইল মিলে ৫২টি ট্রেন কমলাপুর ছেড়ে যাবে। এছাড়াও স্বল্প দূরত্বের ১৬টি লোকাল ট্রেনও চলবে। আর আন্তঃনগর ও মেইল এক্সপ্রেসে ৫৭ হাজারের কিছু বেশি আসন রয়েছে।

মায়ের সঙ্গে বাড়ি ফেরায় বেজায় খুশি ছোট্ট মেহেরিন। তার মা জিনাত  বলেন, স্বাচ্ছন্দ্যে বাড়ি যেতে আগেভাগেই চলে যাচ্ছি। আমার স্বামী কর্মজীবী হওয়ায় ঈদের আগের দিন যাবেন। মহানগর প্রভাতী এক্সপ্রেস সময় মতো ছেড়েছে বলেও জানান এ যাত্রী।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আশিকুল যাবেন রংপুর। রংপুর এক্সপ্রেস কিছুটা বিলম্বে ছাড়বে বলে প্ল্যাটফর্মে অপেক্ষা করছিলেন বন্ধুদের সঙ্গে।  তিনি বলেন, রেলে আরও কিছুটা সেবার মান বাড়ানো দরকার। তারপরও আমরা খুশি। খুব বেশি দেরি হয়নি ট্রেনের।

কমলাপুর রেলস্টেশনের ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক বলেন, আমরা ট্রেনের শিডিউল ঠিক রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। যাত্রীদের যাতে কোনো দুর্ভোগ না হয়, সেজন্য রেল কর্মকর্তারা কাজ করছেন।

আরও পড়ুন>> ঈদে শেকড়ের টানে বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে মানুষ