স্থগিত থাকছে খালেদার জামিন, শুনানি ৮ মে

স্থগিত থাকছে খালেদার জামিন, শুনানি ৮ মে

 জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) আপিলের অনুমতি দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

দুই সপ্তাহের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদককে এবং পরবর্তী দুই সপ্তাহের মধ্যে আসামিপক্ষকে আপিলের সারসংক্ষেপ জমা দেওয়ার জন্যও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ আপিলের শুনানির জন্য ৮ মে দিন ধার্য করা হয়েছে। একইসঙ্গে হাইকোর্টের দেওয়া জামিনের ওপর স্থগিতাদেশ দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

সোমবার (১৯ মার্চ) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের লিভ টু আপিল মঞ্জুর করে এ আদেশ দেন।

আদেশের পরে সাংবাদিকদের খালেদার জিয়ার তিন আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, মওদুদ আহমদ ও জয়নুল আবেদীন বলেন, এ ধরনের আদেশ আগে কখনো দেখিনি।

জয়নুল আবেদীন বলেন, এটাকে নজিরবিহীন বলতে বাধ্য হচ্ছি। এটা অনিভপ্রেত। আমরা মর্মাহত।  গত ১২ মার্চ খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট। হাইকোর্টের দেওয়া চার মাসের জামিন স্থগিত চেয়ে পর দিন ১৩ মার্চ আপিল বিভাগে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক।

পরে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালত এ দুই আবেদনের শুনানির জন্য ১৪ মার্চ দিন ধার্য করেন। এরপর ১৪ মার্চ আপিল বিভাগ রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদককে জামিনের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে) দায়ের করতে বলে চার মাসের জামিন ১৮ মার্চ (রোববার) পর্যন্ত স্থগিত করেন। এ আদেশ অনুসারে পরের দিন ১৫ মার্চ রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক লিভ টু আপিল দায়ের করেন।

এ আপিলের ওপর শুনানি হয় রোববার (১৮ মার্চ)। শুনানি শেষে আবেদনের ওপর আদেশের জন্য সোমবার দিন ধার্য করেন আদালত।