স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর হত্যা, ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর হত্যা, ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় সাদিয়া সামাদ লিসা (১৪) নামে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণের পর হত্যা করে পুকুরে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।


এ ঘটনায় নিহত লিসার বাবা বাদী হয়ে শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে তিনজনকে আসামি করে আটোয়ারী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

তিন আসামির মধ্যে দু’জনকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলেন, আটোয়ারী উপজেলা সদরের ছোটদাপ এলাকার ফারুক হোসেনের ছেলে আকাশ ও মজিবর রহমানের ছেলে মেহেদি হাসান মুন্না।

অপরদিকে মামলার প্রধান আসামি ছোটদাপ এলাকার স্কুলশিক্ষক আকতারুজ্জামানের ছেলে সাদ ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন।

আটোয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক  জানান, নিখোঁজের একদিন পর বাড়ির পাশের পুকুর থেকে আটোয়ারী পাইলট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের স্কুলছাত্রী লিসার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে শুক্রবার রাতে নিহত লিসার বাবা আব্দুস সামাদ বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। আমরা সকালে দু'জনকে আটক করেছি। অপর আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, গত ১৯ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) বিকেলে লিসাকে কোনো কিছুর জন্য হুমকি দেয় সাদ। এরপর সন্ধ্যা থেকেই নিখোঁজ ছিল লিসা। পরে ২০ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) সকালে বাড়ির পাশের একটি পুকুর থেকে লিসার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।