স্কুল থেকে ফিরে বাবা-মায়ের লাশ পেল মেয়ে

স্কুল থেকে ফিরে বাবা-মায়ের লাশ পেল মেয়ে

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার উত্তর গয়াবাড়ি ধনীপাড়া গ্রামে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় প্রাণে রক্ষা পেয়েছে নিহত দম্পতির তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে রুবিনা।

নিহতরা হলেন- ওই গ্রামের মনির উদ্দিনের ছেলে দিলীপ ইসলাম (৪৫) ও তার স্ত্রী আছিয়া বেগম (৪০)। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।


স্থানীয়রা জানান, ওই দম্পতির দুই মেয়ে ও এক ছেলে। তারা সম্প্রতি বড় মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। ছোট ছেলে ও মেয়ে ঘটনার সময় স্কুলে ছিল। দুপুর ২টার দিকে ছোট মেয়ে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী রুবিনা স্কুল থেকে বাড়ি ফেরে। সে ঘরে ঢুকে বাবা-মাকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে তাদের হাত ধরতে গেলে সেও বিদ্যুতের ধাক্কা খেয়ে ছিটকে পড়ে। এ সময় রুবিনার আত্মচিৎকারে গ্রামবাসী ছুটি এসে ওই বাড়ির বিদ্যুতের মেইন সুইচ অফ করে ওই দম্পতির মরদেহ উদ্ধার করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিমলা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজ উদ্দিন শেখ জানান, সিলিং ফ্যানের সুইচসহ দিলীপ ইসলামের মরদেহ ঘরের মেঝেতে পড়েছিল। পাশেই তার স্ত্রীও পড়েছিল। ধারণা করা হচ্ছে স্বামী-স্ত্রী দুইজনই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন।