সৌদি আরবের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা আনতে মার্কিন সিনেটে বিরল ঐক্য

সৌদি আরবের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা আনতে মার্কিন সিনেটে বিরল ঐক্য

করতোয়া ডেস্ক : সৌদি আরবের কাছে আটশো কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি পরিকল্পনার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে দেশটির সিনেট। গত মাসে ইরানের হুমকিকে কারণ দেখিয়ে সিনেটকে পাশ কাটিয়ে এই অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দেন ট্রাম্প। বৃহস্পতিবার রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ মার্কিন সিনেটে ট্রাম্পের দলীয় আইনপ্রণেতাদেরই একাংশের সমর্থন নিয়ে অস্ত্র বিক্রি ঠেকাতে তিনটি প্রস্তাব পাস করতে সমর্থ হয় ডেমোক্র্যাটরা । প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার প্রস্তাবে ভেটো দেওয়ার কথা বলে আসছেন শুরু থেকেই। সেই ভেটো অগ্রাহ্য করতে হলে সিনেটে পাস হওয়া প্রস্তাবগুলোকে প্রতিনিধি পরিষদে দুই তৃতীয়াংশ সমর্থন পেতে হবে, যা প্রায় অসম্ভব।অস্ত্র বিক্রির ক্ষেত্রে মার্কিন কংগ্রেসের অনুমোদনের দরকার হলেও বিশেষ অবস্থায় প্রশাসনিক আদেশ দিয়ে তা অনুমোদনের ক্ষমতা রাখেন প্রেসিডেন্ট। গত মাসে সেই সুযোগ ব্যবহার করে সৌদি আরবের কাছে আটশো কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দেন ট্রাম্প। সে সময় ডেমোক্র্যাট সদস্যরা অভিযোগ তোলেন, পার্লামেন্টে কঠোর বিরোধিতার মুখে পড়ার আশঙ্কাতেই কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়েছেন ট্রাম্প।

সৌদি আরবের মানবাধিকার রেকর্ড খারাপ থাকায় ট্রাম্পের এই উদ্যোগ ঠেকানোর প্রচেষ্টায় যোগ দেয় রিপাবলিকান সিনেট সদস্যরাও। বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্টের উদ্যোগ ঠেকাতে তিনটি প্রস্তাব পাশ করে সিনেট। অস্ত্র বিক্রি ঠেকাতে প্রথম ও দ্বিতীয় প্রস্তাবটি সিনেটে ৫৩-৪৫ ভোটে অনুমোদিত হয়। এছাড়া অস্ত্র বিক্রির সাথে সম্পৃক্ত আরও কয়েকটি ইস্যুতে অনুষ্ঠিত তৃতীয় প্রস্তাবটি ৫১-৪৫ ভোটে পাশ হয়। সিনেটে পাশ হওয়া তিনটি প্রস্তাব এখন ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে (হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভ) পাশ হতে হবে। তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, প্রতিনিধি পরিষদে এসব প্রস্তাব পাশ হলেও প্রেসিডেন্টের ভেটো অগ্রাহ্য করতে প্রয়োজনীয় দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। ফলে সৌদি আরবের কাছে এই অস্ত্র বিক্রি ঠেকানো সম্ভব হবে না।