সিংড়ায় ছেলের লাঠির আঘাতে মা নিহত

সিংড়ায় ছেলের লাঠির আঘাতে মা নিহত

সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি : নাটোরের সিংড়া উপজেলার কলম ইউনিয়নের পুন্ডরী গ্রামে মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের  আঘাতে মা জরিনা বেগম (৬৫) নিহত হয়েছে। জরিনা বেগম পুন্ডরী গ্রামের মৃত মোহাম্মাদ আলীর স্ত্রী। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে কোন এক সময় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে গতকাল শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন অতিরিক্তি পুলিশ সুপার (সিংড়া সার্কেল) মীর আসাদুজ্জামান এবং সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল ইসলাম। লাশটি উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে জিয়ারুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার সকালে পুন্ডরী গ্রামের
মৃত মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী জরিনা বেগমের লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয় এলাকাবাসী। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামত জব্দ ও লাশটি উদ্ধার করে।

লাশের কপালে আঘাতের চিহ্ন আছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। প্রতিবেশী জাকির হোসেন জানান, মোহাম্মাদ আলী ৩ ছেলে ও ১ মেয়েকে নিয়ে পুন্ডরী গ্রামে বসবাস করতেন। ২ বছর আগে মোহাম্মাদ আলী মারা যান। বড় ছেলে কাজের জন্য ঢাকায় থাকে। আরেক ছেলে নিখোঁজ, ৮-১০ বছর পর পর বাড়িতে আসে কিছুদিন থেকে আবারও উধাও হয়ে যায়। জিয়ারুল ইসলাম ৫ বছর আগেও স্বাভাবিক মানুষের মত জীবন যাপন করতো, কলম বাজারে ব্যবসা ছিল। বৃদ্ধা মা মানুষের বাড়িতে বাড়িতে ভিক্ষা করে সংসার চালাতেন। বসত ভিটা বা কোন জমি না থাকায় স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুন্ডরী ব্রিজের পাশে গুড়নাই নদীর ধারে খাস জায়গাতে থাকার ব্যবস্থা করে দেয়া হয়। সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ হয়েছে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে জিয়ারুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।