সরকারের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমর্থন

সরকারের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমর্থন

সরকারের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমর্থনের কথা জানিয়েছেন জোটের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম।  বুধবার বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের এক সভা শেষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সমর্থনের কথা জানান। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জঙ্গী দমনের মত মাদক বিরোধী অভিযানের মত সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মাদক দেশের তরুন সমাজ থেকে শুরু করে নারী ও শিশুদেরও ধ্বংস করছে। তিনি বলেন, দেশের মানুষ সরকারের মাদক বিরোধী সর্বাত্মক অভিযানের প্রসংশা করছে। কেন্দ্রীয় ১৪ দলও সরকারের মাদক বিরোধী অভিযানকে পূর্ণ সমর্থন দান করেছে। মাদক দ্রব্য পুরোপুরী নিয়ন্ত্রনে আসার আগ পর্যন্ত এ অভিযান চলবে উল্লেখ করে নাসিম বলেন, সরকারের যে মাদক বিরোধী অভিযান চলছে কাঙ্খিত লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত সে অভিযান চলবে।  সরকারের মাদক বিরোধী অভিযানকে সফল করতে দলমত নির্বিশেষে দেশের সকল শেনী ও পেশার মানুষকে এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান তিনি। আগামী জাতীয় নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের বিষয়ে জানতে চাইলে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সামরিক বাহিনী প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে কাজ করে থাকে। নির্বাচন কমিশন যদি প্রয়োজন মনে করে তাহলে তারা আইন অনুযায়ী তারা নিয়োজিত থাকবে। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আগামী ৭ জুলাই রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যাণে ভারতের আসানসোলের কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি-লিট অর্জনসহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসামান্য সফলতার জন্য আওয়ামী লীগ তাঁকে গণসংবর্ধনা দেবে কেন্দ্রীয় ১৪ দল সে সংবর্ধনায় অংশ নেবে। তিনি বলেন, এছাড়াও আগামী ২৩ জুন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের নবনির্মিত দলীয় কার্যালয় উদ্ধোধন করবেন। সে অনুষ্ঠানেও যোগ দেবে কেন্দ্রীয় ১৪ দল। ভারতের আসানসোলের কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি-লিট অর্জন করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান নাসিম। এ সময় সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান এমপি, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, গণ-আজাদী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আতাউল্লাহ খান, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদের আহবায়ক রেজাউর রশিদ খান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ড. শাহাদাত হুসেইন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গণ-আজাদী লীগের সভাপতি এসকে শিকদারের সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা পরিচালনা করেন মোহাম্মদ নাসিম।