সমঝোতার ভিত্তিতেও নির্বাচনকালীন সরকার গঠন সম্ভব: মওদুদ

সমঝোতার ভিত্তিতেও নির্বাচনকালীন সরকার গঠন সম্ভব: মওদুদ

বিদ্যমান সংবিধান সংশোধন না করেও সমঝোতার ভিত্তিতে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার গঠন করা যায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ। রোববার দুপুরে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, একানব্বই সালে সংবিধানের বাইরে গিয়ে বিচারপতি সাহাবুদ্দিন আহম্মদকে দায়িত্ব দিয়ে একটা নিরপেক্ষ নিদর্লীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। জনগণের দাবি রক্ষা করতে গিয়ে সেটা করতে হয়েছে। এবারও তাই। আপনারা (সরকার) যদি বলেন সংবিধান সংশোধন করব না, দরকার নাই।

সমঝোতার মাধ্যমে নির্বাচন হবে এবং তারপরে সেটার বৈধতা দেওয়া হবে আগামী সংসদে। সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার লেখা বইকে ঐতিহাসিক অভিহিত করে সাবেক আইনমন্ত্রী বলেন, অনেক কিছু লেখা আছে। সত্য কথা তিনি লিখেছেন। তিনি বলেছেন দেশের উচ্চতর আদালতে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ করা হয়েছে। দেশের প্রধান বিচারপতিকে জোর করে পদত্যাগ করতে ও দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়। ষোড়শ সংশোধনীর যে রায় তিনি দিয়েছেন এটা ঐতিহাসিক রায়। এ রায় সরকার পছন্দ করে নাই। আমি বলতে চাই, এদেশের মানুষ কোনোদিন আওয়ামী লীগকে ক্ষমা করবে না। আমরা আশা করি, ভবিষ্যতে জনগণের সরকার আসলে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা আবার ফিরিয়ে আনা হবে। জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স কক্ষে বাংলাদেশে লেবার পার্টির উদ্যোগে নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে এই আলোচনা সভা হয়। সংগঠনের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মো. মনসুর, বিএনপির শিশু বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, লেবার পার্টির ফারুক রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।