সখীপুরে ভুল চিকিৎসায় ছাত্রীর মৃত্যুর অবিযোগ সহপাঠীদের মানববন্ধন

সখীপুরে ভুল চিকিৎসায় ছাত্রীর মৃত্যুর অবিযোগ সহপাঠীদের মানববন্ধন

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের সখীপুরের একটি ক্লিনিকের নিয়োগ পাওয়া চিকিৎসকের ভুল অস্ত্রোপচারে এক কলেজছাত্রীর মৃত্যু হওয়ার অভিযোগ এনে ওই চিকিৎসকের বিচার দাবিতে মানববন্ধন ও রাস্তা অবরোধ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১২টায় সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজের মেধাভিত্তিক ছাত্রী সংসদ সখীপুর-স্মৃতিসৌধ সড়কে কলেজের সামনে এ কর্মসূচি পালন করে। এছাড়াও একই দাবিতে ওই কলেজ ছাত্রীর স্বজন ও এলাকাবাসী সখীপুর ঢাকা সড়কে বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করে।  উল্লেখ্য, সখীপুরে একটি ক্লিনিকে ভুল অস্ত্রোপচারের ১৩ দিন পর গত সোমবার ভোরে রাতিয়া ইসলাম ওরফে হ্যাপী (১৮) নামের ওই কলেজছাত্রী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায়। হ্যাপী সখীপুর পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের গড়গোবিন্দপুর গ্রামের আবদুল হান্নানের মেয়ে। নিহত হ্যাপী সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজ থেকে ২০১৭ সালে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচএসসি পাস করে।

 মেয়েটির বাবা আবদুল হান্নান অভিযোগ করেন, পিত্রথলিতে (গলব্লাডার) অস্ত্রোপচার না করে অ্যাপেনডেক্সে অস্ত্রোপচার করায় চিকিৎসকের ভুলে আমার মেয়ের অকাল মৃত্যু হয়েছে। আমি চিকিৎসকের বিচার চাই। মেয়ের স্বজন ও সহপাঠী বন্ধুরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও দোষী চিকিৎসকের বিচার চেয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। কলেজছাত্রীর মামা আলমগীর জানান, পেটের ব্যথা নিয়ে আমার ভাগনি হ্যাপীকে গত ৬ মার্চ সখীপুর লাইফ কেয়ার ক্লিনিকে ভর্তি করি। ওই ক্লিনিকের চিকিৎসক আবদুস সাত্তার (কোনো সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক নন) কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করেই অ্যাপেনডেক্সের অস্ত্রোপচার করান। তিনদিন পর রোগীকে বাসায় নিয়ে আসার পর আবার ব্যথা শুরু হলে ওই চিকিৎসকের পরামর্শে গত ১১ মার্চ টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে এক রাত চিকিৎসা শেষে আবার বাড়ি আনা হয়। আবার অবস্থার অবনতি হলে ১৩ মার্চ সেই সখীপুরের লাইফকেয়ার ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সেখানে রোগীর অবস্থা আরও খারাপ হলে ১৫ মার্চ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 তিনদিন পর গত সোমবার ভোররাতে ওই কলেজছাত্রীর মৃত্যু হয়। কলেজ ছাত্রীর মা রাশেদা বলেন, ঢাকার চিকিৎসকরা বলেছেন, পিত্রথলিতে (গলব্লাডার) অস্ত্রোপচার না করে অ্যাপেনডেক্সে অস্ত্রোপচার করায়  চিকিৎসকের ভুলে ওই রোগীর মৃত্যু হয়েছে।    সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজের ছাত্রীসংসদের ভিপি স্বপ্না আক্তার বলেন, চিকিৎসকের ভুলে আমার প্রিয় বান্ধবীর মৃত্যু হয়েছে। ওই চিকিৎসকের বিচার দাবি করছি।     সখীপুরের লাইফ কেয়ার ক্লিনিকের চিকিৎসক আবদুস সাত্তার মুঠোফোনে বলেন, অ্যাপেনডেক্স অপারেশনে সাধারণত রোগীর মৃত্যু হয় না। অপারেশনের আগে রোগীর লোকজন টাঙ্গাইলের একটি ক্লিনিক থেকে করা পরীক্ষার প্রতিবেদন দেখে অ্যাপেনডেক্সের অপারেশন করা হয়েছে। রোগী আসলে ভুল অপারেশনে মরেনি। হয়তো আরও অন্য কোনো সমস্যার কারণে মৃত্যু হয়েছে। এখানে আমার কোনো ভুল হয়নি। সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হক ভুইয়া বলেন, শুনেছি, ডাক্তারের ভুল অপারেশনে একজন মেধাবী ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখন কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। সখীপুর পৌরসভার মেয়র আবুহানিফ আজাদ বলেন, সোমবার বেলা পাঁচটায় জানাজা হয়েছে।  এ বিষয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বসে বিষয়টি মীমাংসা করা হবে।