সংকট মোকাবিলায় বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতার ইতিহাস দীর্ঘ

সংকট মোকাবিলায় বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতার ইতিহাস দীর্ঘ

ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেছেন, আমি গর্বিত যে যুক্তরাষ্ট্র এবং বাংলাদেশের জরুরি অবস্থা এবং সংকট মোকাবিলায় সহযোগিতার দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে।

সন্ত্রাসবাদবিরোধী সহযোগিতা জোরদার করতে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের উদ্যোগে ২-৬ ফেব্রুয়ারি এক সপ্তাহের আন্তঃমন্ত্রণালয় কোর্স অনুষ্ঠিত হয়েছে। আন্তঃমন্ত্রণালয় এ কোর্সে বক্তব্য দিতে গিয়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূত এ কথা বলেন।


 
মার্কিন রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, এই কোর্সটি আমাদের শক্তিশালী এবং স্থায়ী নিরাপত্তা অংশীদারির আরেকটি উদাহরণ।

বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার মার্কিন দূতাবাস এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

আন্তঃসংস্থা সন্ত্রাসবাদবিরোধী সহযোগিতা, সংকট পরবর্তী কার্যকর প্রতিক্রিয়া সক্ষমতা এবং প্রাতিষ্ঠানিক দৃঢ়তা জোরদার করা ছিল কোর্সের মূল লক্ষ্য। ফ্লোরিডার ট্যাম্পাভিত্তিক যুক্তরাষ্ট্রের জয়েন্ট স্পেশাল অপারেশনস ইউনিভার্সিটির (জেএসওইউ) সদস্যরা এই কোর্সটির নির্দেশনা দেন।

কোর্সটিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ (সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনী), কাউন্টার-টেররিজম ট্র্যান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট, শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এবং পুলিশের বিশেষ শাখাসহ বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয় ও নিরাপত্তা বিষয়ক সংস্থার ২৯ জন কর্মকর্তা যোগ দেন।

 

তারা ইন্টারেক্টিভ প্রশিক্ষণে অংশ নেন। কোর্স অংশগ্রহণকারীরা পরিকল্পনা তৈরি করা, কৌশলগত যোগাযোগ স্থাপন এবং নীতি প্রণয়ন সম্পর্কে শেখেন। আন্তঃসংস্থা সক্ষমতা এবং সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে তাদের ধারণা আরও ষ্পষ্ট হয়।

কোর্সটি বিভিন্ন পটভূমি, খাত এবং সংস্থা থেকে আসা অংশগ্রহণকারীদের জন্য নতুন ধারণা এবং দৃষ্টিভঙ্গি বিনিময় করার একটি উন্মুক্ত ফোরাম হিসেবে ভূমিকা রাখে।


 
কয়েকটি সূচনা বক্তৃতার পরে কোর্সে অংশগ্রহণকারীদের কয়েকটি দলে বিভক্ত করে চলমান ইস্যুগুলোতে একটি কাল্পনিক আন্তঃসরকার নীতিমালা তৈরি করতে একত্রে কাজ করার দায়িত্ব দেয়া হয়।

কোর্সটি অংশগ্রহণকারীদের সমালোচনামূলকভাবে চিন্তা করার দক্ষতা যাচাই এবং সন্ত্রাসবাদের ঘটনা মোকাবিলায় দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রণালয় এবং নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর মধ্যে সংহতি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস বাংলাদেশে জেএসওইউর পরিচালিত অন্যান্য কোর্স আয়োজনের সম্ভাবনা খতিয়ে দেখতে অংশগ্রহণকারী মন্ত্রণালয় ও নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর সঙ্গে কাজ করছে। কোর্সের সম্ভাব্য বিষয়বস্তুর মধ্যে রয়েছে-সহিংস চরমপন্থা মোকাবিলা ও সিভিল-মিলিটারি অপারেশন বিষয়ক সেমিনারসহ বিভিন্ন ইস্যু।

বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র আন্তঃমন্ত্রণালয় সন্ত্রাসবাদবিরোধী সহযোগিতা কোর্স বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সহযোগিতা সম্প্রসারণ, আলোচনা এবং পরস্পর বোঝাপড়ার অন্যতম উদ্যোগ এবং স্বাধীন ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল নিশ্চিত করতে একটি শক্তশালী অংশীদার।