শ্যামলীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা নিহত

শ্যামলীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা নিহত

রাজধানীর আদাবর থানাধীন শ্যামলী এলাকায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মেহেদী হাসান (৩২) নামে এক মাদকবিক্রেতা নিহত হয়েছেন।


বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৬টার দিকে আদাবর থানাধীন শ্যামলী বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালের সামনের সড়কে এ ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ঘটনা ঘটে।

র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার ও পুলিশ সুপার (এসপি) মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, মাদক ব্যবসায়ীদের একটি গ্রুপ চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে বাসযোগে মাদকসহ ঢাকায় আসছে এমন গোপন খবরের ভিত্তিতে ভোর থেকে রাজধানীর গাবতলী, দারুসসালাম ও কল্যাণপুরে অবস্থায় নেয় র‌্যাব-২ এর সদস্যরা। এ সময় সন্দেহজনক একটি বাসকে টার্গেট করে গাবতলী থেকে অনুসরণ করতে থাকেন তারা। পরে বাসটি কল্যাণপুরে থামলে তিন থেকে চারজন যাত্রী নামলেও তেমন কাউকে পাওয়া যায়নি। এরপরও বাসটির পিছু নেন র‌্যাব সদস্যরা। পরে শ্যামলী এলাকায় বাস থেকে কয়েকজন যাত্রী নামলে র‌্যাব সদস্যরা তাদের তল্লাশি করেন। এর মধ্যেই একজন  বাস থেকে নেমে তল্লাশি করা দেখে হাঁটতে থাকেন। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা পেছন থেকে তাকে ডাকতেই র‌্যাবকে লক্ষ্য করে কয়েকজন গুলি ছুঁড়তে থাকেন। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছুড়লে  ঘটনাস্থল থেকে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এ সময় হাসপাতালের পেছন দিয়ে আরও অন্তত তিন থেকে চার জন পালিয়ে যান। পরে গুলিবিদ্ধ ওই ব্যক্তিকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এ সময় তার কাছ থেকে একটা বিদেশি পিস্তল, পাঁচ রাউন্ড গুলি, ৩০০ গ্রাম হেরোইন, নগদ এক হাজার ৬৫০ টাকা, একটি জাতীয় পরিচয়পত্র, একটি ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাঁচটি বাসের টিকেট উদ্ধার করা হয়েছে।

তার সঙ্গে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র ও ড্রাইভিং লাইসেন্স যাচাই করে তার নাম-পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। নিহত মেহেদী মূলত রাজশাহীর সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদক এনে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকাসহ নারায়ণগঞ্জে সরবরাহ করতেন। মেহেদীর নামে রাজধানীর হাজারীবাগ, আদাবর, মিরপুরসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। ‘বন্দুকযুদ্ধে’ র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন বলেও জানান এসপি মহিউদ্দিন।