শেরপুরের দুই আসনে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন

শেরপুরের দুই আসনে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন শেরপুর-২ ও শেরপুর-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী ফাহিম চৌধুরী এবং মাহমুদুল হক রুবেল। ভোট চলাকালীন রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন তারা।

শেরপুর-৩ আসনের বিএনপি প্রার্থী মাহমুদুল হক রুবেল অভিযোগ করেন, আমরা আশা করেছিলাম নির্বাচনের দিন ভালো ভোট হবে। কিন্তু বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে পুলিশের সহায়তায় আমাদের এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জোরপূর্বক ব্যালটে সিল মারছে। এমন কারচুপি ও নগ্ন পক্ষপাতিত্বমুলক নির্বাচনের কারণে আমরা ভোট বর্জনসহ আমাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলাম।

এদিকে শেরপুর-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী ফাহিম চৌধুরী অভিযোগ করেন, লাঠিসোটা নিয়ে বিভিন্ন কেন্দ্রে আমাদের কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা চলানো হয়েছে। জোরপূর্বক ব্যালটে আওয়ামী লীগের লোকেরা সিল মারছে। তাই আমি নির্বাচন বর্জন এবং আমার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করছি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন শেরপুর-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী সানসিলা জেবরিন ও শেরপুর জেলা বিএনপির নেতা অ্যাডভোকেট তৌহিদুর রহমান। তবে সানসিলা জেবরিন জানিয়েছেন, কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে থাকবেন তিনি।

তাছাড়া স্থানীয় বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে গোলযোগের জেরে শহরের গৌরীপুর এলাকার জামিয়া আরাবিয়া তালিমুন্নিছা মহিলা মাদ্রাসা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বন্ধ হয়ে যায়। প্রিজাইডিং অফিসার তার অন্যান্য কর্মকর্তাদের নিয়ে কেন্দ্রটির ভেটগ্রহণ বাতিল করে স্থান ত্যাগ করেন।