শিশু আকিফার মৃত্যু বাস চালক দুই দিনের রিমান্ডে

শিশু আকিফার মৃত্যু বাস চালক দুই দিনের রিমান্ডে

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়া শহরে বাসের ধাক্কায় মায়ের কোল থেকে ছিটকে পড়ে এক বছরের শিশু আকিফা খাতুনের মৃত্যুর ঘটনায় বাসের চালক মহিত মিয়া খোকনকে দুইদিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি পেয়েছে পুলিশ। গতকাল বুধবার কুষ্টিয়ার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম এমএম মোর্শেদ এ আদেশ দেন বলে আদালত পলিশের পরিদর্শক মনিরুজ্জামান জানান। গত ২৮ অগাস্ট কুষ্টিয়া শহরতলীর চৌড়হাস মোড়ে ফয়সাল গঞ্জেরাজ পরিবহনের বাসের ধাক্কায় মায়ের কোল থেকে ছিটকে পড়ে যায় শিশু আকিফা। দুই দিন পর হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। আকিফার বাবা হারুনর রশিদ ৩০ অগাস্ট গঞ্জেরাজ পরিবহনের চালক মহিত মিয়া ওরফে খোকন, তার সহকারী ইউনুস মাস্টার এবং বাস মালিক জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা করেন। মামলার পর ৯ সেপ্টে¤॥^র ফরিদপুর থেকে বাসের মালিক জয়নালকে এবং ১২ সেপ্টে¤॥^র একই জেলার সদর উপজেলার বঙ্গেশ্বরদী এলাকা থেকে চালক মহিত মিয়াকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরে তাদের কুষ্টিয়ার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম এমএম মোর্শেদের আদালতে হাজির করা হলে জামিনের জন্য আবেদন করেন তারা।শুনানি শেষে বিচারক দুজনকেই জামিন দেয়

 পরে পুলিশের করা এক আবেদনের প্রেক্ষিতে একই আদালত এই মামলায় দন্ডবিধির ৩০২ ধারা, অর্থাৎ হত্যার ধারা যুক্ত করার আদেশ দেয়; সেইসঙ্গে বাস মালিক ও চালকের জামিন বাতিলেরও আদেশ দেয়। এর আগে মামলা করার সময় আকিফার বাবা দন্ডবিধির ৩০২ ধারা যুক্ত করতে চাইলেও গেজেট না হওয়ার কারণ দেখিয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ তা দন্ডবিধির ২৭৯/৩৩৮(ক), ৩০৪(খ) ধারায় মামলাটি নথিভুক্ত করেছিল। আদালত পলিশের পরিদর্শক মনিরুজ্জামান বলেন, আকিফা হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কুষ্টিয়া মডেল থানার এসআই সুমন কাদেরী গত রোববার বাসের চালক মুহিত মিয়াকে জ্ঞিাসাবাদের জন্য পাঁচদিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেছিলেন। শুনানি শেষে বিচারক দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মুহিতকে কুষ্টিয়া কারাগারে রাখা হয়েছে।

 বাসের ধাক্কায় মায়ের কোল থেকে আকিফার ছিটকে পড়ার ওই ঘটনার একটি সিসিটিভি ভিডিও ফোইসবুকে ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে প্রতিক্রিয়া হয়। সেখানে দেখা যায়, গঞ্জেরাজ পরিবহনের একটি বাস রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে যাত্রী তুলছে। ওই সময় আকিফাকে কোলে নিয়ে তার মা রিনা বেগম বাসটির সামনে দিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। ওই সময়ই বাসটি চলতে শুরু করে এবং রিনা বেগমকে ধাক্কা দিয়ে চলে যায়। বাসের ধাক্কায় মায়ের কোল থেকে আফিফা পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হয়। আহত মা-মেয়েকে উদ্ধার করে প্রথমে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে শিশুটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানেই মারা যায় আকিফা