শিক্ষকের ঠোঁট কামড়ে জখম করলেন অপর শিক্ষক

শিক্ষকের ঠোঁট কামড়ে জখম করলেন অপর শিক্ষক

মাগুরার শালিখা উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা চলাকালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই শিক্ষকের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় এক শিক্ষকের কামড়ে অপর শিক্ষকের ঠোঁট গুরুতর জখম হয়েছে।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় শালিখা উপজেলার ধনেশ্বরগাতি বাজারে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর জখম অবস্থায় শ্রীপতি বিশ্বাসকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


আহত শ্রীপতি বিশ্বাস শালিখা উপজেলার নাঘোষা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এবং অভিযুক্ত উজ্জ্বল মজুমদার একই উপজেলার মশাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

আহত শিক্ষক শ্রীপতি বিশ্বাস জানান, থৈপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা চলাকালে কক্ষের ভেতর উচ্চস্বরে কথা বলায় দায়িত্বরত শিক্ষক হিসেবে তিনি পরীক্ষার্থীদের গালমন্দ করেন। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীরা তাদের মশাখালী স্কুলের শিক্ষক উজ্জ্বল মজুমদারের কাছে নালিশ করে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে উজ্জ্বল মজুমদার পরীক্ষা শেষে ধনেশ্বরগাতি বাজারে শিক্ষক শ্রীপতি বিশ্বাসের ওপর হামলা করেন এবং কামড় দিয়ে তার ঠোঁট গুরুতর জখম করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গুরুতর অবস্থায় মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।


 
তবে অভিযুক্ত নাঘোষা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক উজ্জ্বল মজুমদার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, তারা সম্পর্কে তারা চাচা-ভাতিজা। তবে হাতাহাতির সময় পড়ে গিয়ে তার (শ্রীপতি বিশ্বাস) ঠোঁট কেটে যেতে পারে।

এ বিষয়ে শালিখা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তরিকুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্ত দুই শিক্ষকের মধ্যে আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে। শুধু পরীক্ষা কেন্দ্রের ঘটনায় নয়, উভয়ের মধ্যে ব্যক্তিগত বিরোধের জের ধরেই এ ঘটনা ঘটেছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পাওয়া গেলে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।