শাহজাদপুরে গরু লালন পালন করে স্বাবলম্বী জোবেদা খাতুন

শাহজাদপুরে গরু লালন পালন করে স্বাবলম্বী জোবেদা খাতুন

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : শাহজাদপুরে পোতাজিয়া গ্রামে ব্যবসায়ী আব্দুস সালামের শতাধিক গরু দেখাশোনা করেন তারই সহধর্মিণী জোবেদা খাতুন। মৌসুমী, বৃষ্টি, ময়ূরী, মুনমুন, লক্ষ্মী, শাবনুর, সুন্দরী এভাবে তার খামারে গরুকে নাম ধরে ডাক দেয়া মাত্রই গরুগুলো চলে আসে তার কাছে। মা যেমন সন্তানকে খাবার জন্য ডাক দেয় সেভাবেই গরুগুলো তার কাছে ছুটে আসে। জোবেদা খাতুন তার নিজের গরু এভাবেই রাখালের পাশাপাশি সে নিজেই দেখাশোনা করেন। গরুগুলো নিজে দেখাশোনা করার পাশাপাশি সে একজন ভালো গৃহিণীর দায়িত্বও পালন করে আসছে। গরুর খামারে দেখা যায়, বিভিন্ন জাতের গরুগুলো পালন করার জন্য দুটি রাখাল থাকলেও মূলত জোবেদা খাতুন গরুগুলোকে ঠিকমতো দেখাশোনার দায়িত্ব পালন করেন।

 ভোর থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত গরুর পিঁছনে ছুটে বেড়ান। ফিজিয়ান, শাহিয়াল, অষ্টেলিয়া, জারসি, ক্রসসহ বিভিন্ন জাতের অধিক মূল্যবান গরু পালন করে আজ সে স্বাবলম্বী।  জোবেদা খাতুন জানান, আমি সবাইকে দেখিয়ে দিতে চাই লেখাপড়া করে চাকরির পিঁছনে দৌড়ানোর পরিবর্তে গরু পালন করে অনেক টাকার মানুষ হওয়া যায়। আমি তার দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চাই। প্রত্যন্ত পল্লী অঞ্চল পোতাজিয়া গ্রামের এই নারী যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে তা না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না। গরু পালন করে সে দারিদ্রতাকে জয় করেছে। প্রায় ১৫-২০ বছর ধরে গরু পালন করে ৮/১০ টি গরু থেকে আজ সে ২শ’ থেকে ৩শ’ গরুর মালিক হয়েছে। প্রতিদিন ১১ থেকে ১২ মন দুধ মিল্ক ভিটায় সরবরাহ করছে। এছাড়াও তিনি এলাকায় কারও অনুষ্ঠান বাধলে সে বিনা পয়সায় দুধ তাদের দিয়ে থাকেন এমন কথাও এলাকার মানুষের মাঝে শোনা যায়।