লবণের দাম বাড়ার গুজবে কান না দিতে বগুড়ায় মাইকিং

লবণের দাম বাড়ার গুজবে কান না দিতে বগুড়ায় মাইকিং

লবণের দাম বেড়েছে এমন গুজবে কান না দিতে বগুড়ায় জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে মাইকিং করে প্রচার চালানো হয়েছে।


মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর থেকেই লবণের দাম বেড়ে যাচ্ছে এমন গুজবের ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়েন শহরের বিভিন্ন হাট-বাজার ও দোকানগুলোতে। আর এ সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রতিকেজি লবণ বিক্রি করছে ৫০-৭০ টাকা দরে।

বিকেল থেকে শহরজুড়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে লবণের দাম বাড়ার গুজব বন্ধে শহর জুড়ে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হচ্ছে।

সন্ধ্যায় বেশি টাকায় লবণ বিক্রির সময় বগুড়া শহরের টিনপট্টি এলাকায় লবণের দোকানগুলোতে গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতিতে মালিকদের দোকান ছেড়ে চলে যেতেও দেখা গেছে।

জানা গেছে, গুজবকে কাজে লাগিয়ে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা বগুড়া শহরের রাজাবাজার, ফতেহ আলী, বড়গোলা টিনপট্টি, কলোনি বাজার, উপশহর বাজার চারমাথার গোদারপাড়া বাজারসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকাতে লবণ বেশি দামে বিক্রি শুরু করেন। অনেক ব্যবসায়ীরা বেশি দামে লবণ বিক্রি করার পর প্রশাসনের ভয়ে দোকান বন্ধ করে পালিয়েছেন।

শহরের খান্দার এলাকার মেরাজ শেখ জানান, শুনেছি লবণের দাম বেড়ে গেছে। তাই নিজ বাড়ি ও শ্বশুর বাড়ির জন্য ২৫ কেজি লবণ ৫০ কেজি দরে কিনেছি।

বড়গোলা টিনপট্টির এম আর ট্রেডার্সের মালিক সৈকত জানান, লবণের দাম বেড়ে গেছে এমন খবরে দুপুরের পর আকস্মিক একদল লোক লবণ কিনতে ভিড় জামায়। ভিড় এড়াতে দোকান বন্ধ রাখতে বাধ্য হই।

বগুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম বদিউজ্জামান  জানান, লবণের দাম বাড়া খবরটি গুজব। এটি বন্ধে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ শুরু করে দিয়েছে। এ গুজবে কান না দেওয়ার জন্য ব্যবসায়ী সমিতিকে জানানো হয়েছে। কেউ গুজব সৃষ্টি করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বগুড়া জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ  জানান, লবণের দাম বেড়েছে এমন গুজব বন্ধে জেলা প্রশাসনের একাধিক টিম মাঠে রয়েছেন। প্রতিটি উপজেলাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) নেতৃত্বে কাজ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।