রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চাপ দিন

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চাপ দিন

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্সসহ আটটি সদস্যদের ডাকে মঙ্গলবার রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠকে বসছেন জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। রোহিঙ্গাদের সর্বশেষ কী, সেটা মঙ্গলবার নিরাপত্তা পরিষদের কাছে তুলে ধরার কথা রয়েছে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাই কমিশনার ফিলিপ্পো গ্রান্ডির। মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর লাগাম টেনে ধরে রোহিঙ্গাদের তাদের আবাসে ফেরার পথ সুগম করার আহবান জানিয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছিল জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। গত বছরের সেপ্টেম্বরে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। নিরাপত্তা পরিষদের বিতর্কে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়াতে সব সদস্য একাট্টা হলে তা রোহিঙ্গাদের সসম্মানে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে অবদান রাখবে। নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকটি পূর্বনির্ধারিত হলেও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের অনুসন্ধানী প্রতিবেদন ‘ম্যাসাকার ইন মিয়ানমার’ প্রকাশের ফলে জাতিহত্যার নতুন অকাট্য তথ্য প্রমাণ নিয়ে আলোচনা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। জাতিসংঘ গত শুক্রবার জানিয়েছে, মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের নৃশংসভাবে হত্যার পর কবরে পুঁতে ফেলার বিষয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদন প্রকাশের পর সেখানে সহিংসতার বিষয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্তের প্রয়োজনীয়তা আবার জোরালো হয়েছে। সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীর নিধনযজ্ঞে মিয়ানমার সরকারকে দায়ী করে যে মতামত উঠে এসেছে, তা গণহত্যা ও নির্যাতনের বিশ্ব জুড়ে জনমত গড়ে তুলতে সহায়তা করবে বলে আশা করা যায়।