রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগ অস্বীকার করলেন সু চি

রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগ অস্বীকার করলেন সু চি

 ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিসে (আইসিজে) মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালানোর অভিযোগ অস্বীকার করলেন দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। খবর জার্মান গণমাধ্যম ডয়চে ভেলের।
নেদারল্যান্ডসের হেগে অবস্থিত এই আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালানোর অভিযোগ এনে গাম্বিয়ার করা মামলার শুনানির দ্বিতীয় দিনে নিজের দেশের পক্ষে বক্তব্য উপস্থাপন করার সময় অভিযোগটি অস্বীকার করেন তিনি।
তবে রাখাইনে সহিংসতার কথা স্বীকার করেছেন তিনি। কিন্তু তার মতে, এটিকে কোনোভাবেই গণহত্যা বলা যায় না। তিনি সূচনা বক্তব্যে বলেন, দুঃখজনকভাবে গাম্বিয়া রাখাইনের একটি অসম্পূর্ণ চিত্র উপস্থাপন করেছে।
রাখাইনের পরিস্থিতি জটিল বলে উল্লেখ করে রোহিঙ্গাদের দুর্দশার কথা স্বীকার করেন দেশটির স্টেট কাউন্সেলর। রাখাইনে হত্যা ও সহিংসতায় জড়িত সেনা কর্মকর্তাদের বিচার ও শাস্তি দেয়ার কথাও উল্লেখ করেন তিনি।
পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে হওয়া চুক্তির কথা তুলে ধরে বলেন, মিয়ানমারে সক্রিয়ভাবে অন্যায়ে জড়িত সৈন্য ও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত ও বিচার হচ্ছে।
সু চি বলেন, এতদিন রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত সৈন্যদের বিষয়ে জোর দেয়া হচ্ছিল কিন্তু অচিরেই বেসামরিক নাগরিকদের বিপক্ষেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। এরপরও কিভাবে এটিকে গণহত্যা বলা যায়?
এর আগে মঙ্গলবার প্রথম দিনের শুনানিতে গাম্বিয়া নিজেদের বক্তব্য উপস্থাপন করে। বুধবার মিয়ানমার নিজেদের পক্ষে বক্তব্য উপস্থাপন করছে। তিন দিনের এই শুনানির তৃতীয় দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সাক্ষ্যগ্রহণ হবে।
এজন্য বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গাদের তিন প্রতিনিধি নেদারল্যান্ডসের হেগে গেছেন। তারা আদালতে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দেবেন। দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের পর আইসিজে-তে এটি তৃতীয় গণহত্যা মামলার শুনানি।