রামুতে ইয়াবাসহ পুলিশ সদস্য আটক

রামুতে ইয়াবাসহ পুলিশ সদস্য আটক

কক্সবাজারের রামুর বাইপাস এলাকা থেকে ১৯ হাজার ইয়াবাসহ এক পুলিশ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। এসময় ইয়াবা ব্যবসায়ী মো. ইয়াছিন আরাফাতকেও (২৬) আটক করা হয়।

মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) ভোরে রামু বাইপাস এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।  

আটকেরা হলেন-রামু থানা পুলিশের কনেস্টেবল মো. ইকবাল (২৫) ও ইয়াবা ব্যবসায়ী মো. ইয়াছিন আরাফাত (২৬) । তবে এ সময় ক্যাশিয়ার নামধারী মো. ইকবাল নামের রামু থানা পুলিশের আরেক কনস্টেবল এবং মাইক্রোবাসের চালক মো. ফজল পালিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার (জেসিও) জহির উদ্দিন বাদী হয়ে সন্ধ্যায় চারজনের বিরুদ্ধে রামু থানায় মামলা করেছেন।

রামু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল মনসুর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, আটক দুইজনের মধ্যে একজন রামু থানা পুলিশের কনস্টেবল। কিন্তু প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে তিনি আসলে জড়িত নন। প্রকৃত অভিযুক্ত মাইক্রোবাসের চালক ফজল পালিয়ে গেছেন।

তিনি বলেন, থানায় দায়িত্ব পালনের জন্য কিছুদিন আগে একটি মাইক্রোবাস রিক্যুইজিশান করা হয়। কিন্তু গত রোববার (১৪ অক্টোবর) আমরা ওই গাড়িটি ছেড়ে দিয়েছি। ওই গাড়িটির চালক ছিলেন ফজল। ভোরে রামু বাইপাস একটি চায়ের দোকানে ফজলকে দেখে থানার দুই কনস্টেবল সেখানে যান। এসময় র‌্যাব সেখান থেকে তাদের আটক করে।

কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। বিষয়টি অধিক তদন্ত করে দেখছি। যদি প্রমাণিত হয় তাহলে এদের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা করা হবে।