রাজশাহীতে স্মার্ট অটোরিকশা ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম চালু

রাজশাহীতে স্মার্ট অটোরিকশা ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম চালু

রাজশাহী নগরীতে চালু হয়েছে স্মার্ট অটোরিকশা ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। দেশের প্রথম নগরী হিসেবে সোমবার বিকেলে এটি চালু করে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক)। একই সঙ্গে অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা মালিক এবং চালকদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে স্মার্ট কার্ড।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, স্মার্ট অটোরিকশা ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে মেরুন-পিত্তি রঙের অটোরিকশা দিনের দুই শিফটে চলাচল করবে। সোমবার থেকে এই নিয়মে আটোরিকশা চলাচল শুরু হলেও পুরোপুরি রাস্তবায়ন হতে এক মাস সময় ধরা হয়েছে। এই উদ্যোগ বাস্তবায়ন হলে নগরীর যানজট নিরসন ও জনদুর্ভোগ কমে আসবে অনেকাংশেই।


স্মার্ট অটোরিকশা ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করে সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আজ থেকে নগরীতে দুই শিফটে অটোরিকশা চলাচল করবে। এতে অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা চলাচলে শৃঙ্খলা ফিরবে। চালকদের নিরাপত্তাও নিশ্চিত হবে। কমবে নগরীর যানজট। অনেক চিন্তাভাবনা করেই এ উদ্যোগ হাতে নেয়া হয়েছে।

মেয়র আরও বলেন, নগরীতে টাউন সার্ভিস বাস পরিচালনার প্রস্তাব এসেছিল। এটি চালু হলে অটোরিকশা ও চার্জার রিকশার সঙ্গে জড়িত এখানকার প্রায় লক্ষাধিক মানুষের জীবন-জীবিকা হুমকিতে পড়তো। এটি বিবেচনা করে প্রস্তাবটি প্রত্যাখান করেছি। বিকল্প কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত টাউন সার্ভিস বাস নামানোর পরিকল্পনা নেই রাসিকের।

অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা চালকদের প্রশিক্ষণের আওতায় আনার কথা জানান মেয়র। তিনি বলেন, ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। আইন মেনে রাস্তায় চলাচল করতে হবে চালকদের। এ সময় নগরীর খানাখন্দে ভরা রাস্তাগুলো দ্রুত সময়ের মধ্যে সংস্কারেরও প্রতিশ্রুতি দেন মেয়র।

রাসিকের প্যানেল মেয়র সরিফুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হুমায়ুন কবির।

বক্তব্য দেন রাসিক কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাওগাতুল আলম, রাসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, রাজশাহী মহানগর ইজিবাইক মালিক শ্রমিক সমিতির সভাপতি শরিফুল ইসলাম সাগর প্রমুখ।

সিটি কর্পোরেশন জানিয়েছে, মাসের প্রথম ও তৃতীয় সপ্তাহে সকাল ৬টা হতে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত মেরুন রঙের এবং দুপুর আড়াইটা হতে রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত পিত্তি রঙের অটোরিকশা চলাচল করবে।

মাসের দ্বিতীয় ও চতুর্থ সপ্তাহে সকাল ৬টা হতে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত পিত্তি রঙের এবং দুপুর ২টা হতে রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মেরুন রঙের অটোরিকশা চলাচল করবে। রাত সাড়ে ১০টার পর থেকে এবং শুক্রবার ও সরকারি ছুটির দিনে উভয় রঙের রিকশা চলাচল করবে।

নীতিমালা অনুযায়ী, ১০ হাজার অটোরিকশা এবং ৫ হাজার চার্জার রিকশা নিবন্ধন দেবে রাসিক। চার্জার রিকশা চলাচল করবে অবাধে। তবে চিকন চাকার চার্জার রিকশা বন্ধ জুলাইয়ের প্রথম দিন থেকেই। এই নীতিমালা বাস্তবায়নে কঠোর হবে রাসিক।