রংপুরে ১৬ ভিক্ষুক পরিবারকে বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের পায়তারা

রংপুরে ১৬ ভিক্ষুক পরিবারকে বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের পায়তারা

রংপুর জেলা প্রতিনিধি: রংপুরের ১৬ ভিক্ষুক পরিবারকে দানকৃত ভিটা থেকে উচ্ছেদ করার পায়তারা করছে স্থানীয় একটি মহল। ভিটেবাড়ি উচ্ছেদের আতঙ্কে ভিক্ষুকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। অনেকে জীবনের ভয়ে ভিটেমাটি ছেড়ে অন্যত্র বাস করছেন।এলাকাবাসী জানান, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আর্তের আশার সহায়তায় ১৬টি ভিক্ষুক পরিবারকে দুই শতাংশ করে জমি কিনে দেয়া হয়। সেই জমিতে ভিক্ষুক পরিবারগুলো স্বামী সন্তান নিয়ে বসবাস করছে দীর্ঘ ১০ বছর ধরে। স্থানীয় এক প্রভাবশালী ব্যক্তি ওই জমিগুলো কম মূল্যে কিনে নিয়ে ভিক্ষুক পরিবারগুলোকে উচ্ছেদ করার হুমকি প্রদান করছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, তারা এর আগে ভিক্ষাবৃত্তি করতো এবং নিজেদের বাড়ি ঘর না থাকায় রেলওয়ে স্টেশনের প্লাট ফরমসহ বিভিন্ন বাসাবাড়ি ও মার্কেটের বারান্দায় থাকতো। এখন স্থানীয় এক প্রভাবশালী ব্যক্তি সহায় সম্বলহীন পরিবারদের জমিগুলো কিনে নেয়ার জন্য সন্ত্রাসী লেলিয়ে দিয়ে হুমকি প্রদান করছে।  ইতোমধ্যে ৯টি ঘরের সদস্যরা নামমাত্র মূল্যে জমি বিক্রি করে অন্যত্র চলেও গেছে।

বস্তিবাসী ভিক্ষুক দুলালের স্ত্রী শামসুন্নাহার বলেন, তার জীবন থাকতে জমি বিক্রি করবে না। অন্যদিকে এলাকাবাসি জানান, ভিখারিনীদের জন্য কেনা জমি কেউ কোনো অবস্থাতেই কিনতে পারে না।রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার (ডিবি এন্ড মিডিয়া) আলতাফ হোসেন বলেন, যে সংস্থা ভিক্ষুকদের জমি দান করেছেন তারা অথবা যারা জমিতে থাকছেন তাদের জমি সংক্রান্ত সঠিক কাগজ থাকলে অবশ্যই সবাই আইনের সাহায্য পাবেন। আইনগত বিষয়ে সঠিক সেবা দেয়ার জন্য পুলিশ প্রস্তুত আছে। নিকটস্থ থানা থেকেও চাইলে তারা সাহায্য পেতে পারেন।