রংপুরে সিজারের পর পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রাখার অভিযোগ : প্রসূতির মৃত্যু

রংপুরে সিজারের পর পেটে গজ-ব্যান্ডেজ  রাখার অভিযোগ : প্রসূতির মৃত্যু

রংপুর জেলা প্রতিনিধি : রংপুরে সিজারের পর পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই দেয়ায় নাছিমা বেগম (২৬) নামে এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রোববার সন্ধ্যায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান। এর আগে গত ৫ নভেম্বর নগরীর ধাপ এলাকার রোজ হাসপাতালে ওই প্রসূতির সিজার করেন  ক্লিনিকের চিকিৎসক ডা. রোজি বেগম। নিহত নাছিমা নগরীর ৩২ নং ওয়ার্ডের তালুক তামপাট তেলীপাড়া এলাকার রাশেদুলের স্ত্রী।
নাছিমার স্বজনদের অভিযোগ, গত ৫ নভেম্বর সদর উপজেলার ধাপ এলাকায় অবস্থিত রোজ হাসপাতালে প্রসূতি নাছিমা বেগমকে ভর্তি করা হয়। সেখানে সিজারে সন্তান জন্ম দেন নাছিমা। তবে রিলিজের পর পেটে প্রচন্ড ব্যথা নিয়ে গত শনিবার রংপুর মেডিকেলে ভর্তি হন নাছিমা। সেখানে পুনরায় অস্ত্রোপচার করা হলে তার পেট থেকে গজ-ব্যান্ডেজ বের করা হয়। এক পর্যায়ে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত রোববার সন্ধ্যায় মারা যান নাছিমা। তবে প্রসূতির পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রাখার বিষয়টি অস্বীকার করেছে রোজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

রোজ হাসপাতালের ম্যানেজার মোবারক হোসেন মিলন বলেন, রোগীর পেটে গজ রাখা হয়নি। এর চেয়ে আর বেশি কথা বলতে রাজি হননি তিনি। রংপুরের সিভিল সার্জন ডা. হিরন্ব জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেয়া হবে। রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফরিদুল ইসলাম জানান, গাইনি বিভাগে একজনের মৃত্যুর খবর শুনেছি। তবে রোগীর পুর্ববর্তি ইতিহাস এখনও শুনিনি। বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ নেয়া হবে।