যৌন মিলনে ডেঙ্গু ছড়ানোর প্রথম প্রমাণ

যৌন মিলনে ডেঙ্গু ছড়ানোর প্রথম প্রমাণ

এটা সকলেরই জানা যে, এডিশ মশার কামড়ে ডেঙ্গু হয়। এছাড়া এর অন্য কোনো কারণ আছে বলে জানা নেই। তবে এতদিনের সকলের সেই ধারণা ভুল প্রমাণিত হলো। শুধু এডিশ মশার কামড়েই নয়, যৌন মিলনের সময়ও ছড়াতে পারে ডেঙ্গু!

স্পেনের এমনই এক ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছেন গবেষকরা। দেশটিতে যৌন মিলনের সময় এই প্রথম এক ব্যক্তির ডেঙ্গু আক্রান্ত হবার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

ADVERTISEMENT
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়, আক্রান্তের সঙ্গী কিউবা সফরের সময় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন। পরে দেশে ফিরে শারীরিক সম্পর্কের সময় ওই জীবাণু তার সঙ্গীর শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। স্পেনের জনস্বাস্থ্য বিভাগ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

জনস্বাস্থ্য বিভাগের মাদ্রিদ অঞ্চলের কর্মকর্তা সুসানা জিমেনেজ বলেন, ‘আক্রান্তের স্বামী কিউবা ভ্রমণের সময় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন এবং কিউবা এমনই একটি দেশ যেখানে ডেঙ্গু খুবই সাধারণ একটি বিষয়। কিউবা থেকে ফিরে সঙ্গীর সঙ্গে যৌন মিলনের সময় ওই জীবাণু তার পার্টনারের শরীরে প্রবেশ করে। গত সেপ্টেম্বর তার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হবার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়।’

তিনি বলেন, ‘আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে প্রচণ্ড জ্বর, শরীর ব্যথার মতো বিভিন্ন উপসর্গ দেখা যায়। তার সঙ্গীরও দিন দশেক আগে একই রকমের উপসর্গ দেখা দিয়েছিল। পরে দুজনের শুক্রাণু পরীক্ষা করে দেখা যায়, তাদের শরীরে ডেঙ্গুর ভাইরাস রয়েছে। আর এই ভাইরাসের উপস্থিতি কিউবাতে রয়েছে।

স্টকহোমভিত্তিক ইউরোপিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ প্রিভেনশন অ্যান্ড কন্ট্রোল (ইসিডিসি) এক ই-মেইল বার্তায় বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছে, তাদের জানা মতে, পুরুষের সঙ্গে পুরুষের শারীরিক সম্পর্কে ডেঙ্গু সংক্রমণের এটিই প্রথম ঘটনা।


মাদ্রিদ অঞ্চলের জনস্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা সুজানা আরও বলেন, এর আগে নারী ও পুরুষের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কে ‘সম্ভাব্য’ ডেঙ্গু সংক্রমণের বিষয়টি নিয়ে সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ায় একটি বৈজ্ঞানিক নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।

ডেঙ্গু জ্বর মূলত এডিস এজিপ্টি মশার কামড়ে হয়। বিশ্বে প্রতি বছর ১০ কোটির বেশি মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়। আর মারা যায় প্রায় ১০ হাজার মানুষ। গবেষকদের আশঙ্কা, আগামী ৬০ বছরের মধ্যে বিশ্বের অধিকাংশ অঞ্চলে ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়বে।