যেভাবে দাফন হলো সিলেটের সেই নারীর

যেভাবে দাফন হলো সিলেটের সেই নারীর

সিলেটে বিদেশ ফেরত আইসোলেশনে মারা যাওয়া সেই নারীর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। রোববার (২২ মার্চ) বেলা সোয়া ১টার দিকে নগরীর মানিকপীর (র.) মাজারের গোরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।


সিলেট কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) সৌমেন মৈত্র  বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 
 
এর আগে মরদেহ দাফনের জন্য সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে ড্রেজার দিয়ে ওই গোরস্থানে কবর খোঁড়া হয়। বেলা একটার দিকে মরদেহ একটি অ্যাম্বুলেন্স করে সেখানে নিয়ো যাওয়া হয়। এরপর দাফন করা হয়েছে।
 
সিলেট সিটি করেপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, সিসিকের তত্ত্বাবধানেই ওই নারীর দাফন করা হয়েছে। আমরা সব নিয়মাবলী মেনে এবং সর্বোচ্চ সতর্কতায় মৃত রোগীর দাফন কার্যক্রম সম্পন্ন করেছি। 

তবে বাইরের কিছু লোকজন বাধা স্বত্ত্বেও গোরস্থানে ঢুকে পড়ে জানিয়ে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আসলে আমাদের সবাইকে সতর্ক হতে হবে।  
 
এর আগে যুক্তরাজ্য ফেরত ষাটোর্ধ্ব ওই নারী ২২ মার্চ ভোররাত ৩ টার দিকে নগরীর শহীদ শামসুদ্দীন হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে মারা যান। 
 
হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত ৪ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে ওই নারী দেশে ফেরেন। জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্ট হলে ২০ মার্চ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। করোনা সন্দেহে তাকে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়।
 
সূত্রমতে, ওই নারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তা শনাক্তে শনিবার (২১ মার্চ) ঢাকা থেকে আইইডিসিআর-এর লোকজন এসে রক্ত নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এর আগেই তার মৃত্যু হয়। 

ওই হাসপাতালে সৌদিফেরত এক নারী ও এক কিশোরসহ এখনও তিনজন চিকিৎসাধীন বলে জানায় হাসপাতাল সূত্র।
 
সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উপ পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে শনাক্তের আগেই ওই নারীর মৃত্যু হয়। এ কারণে তিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কি না- তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।