যে কারণে মল্লিকাকে রেখে প্রেমিকাকে নায়িকা হিসেবে নিতেন নায়করা

যে কারণে মল্লিকাকে রেখে প্রেমিকাকে নায়িকা হিসেবে নিতেন নায়করা

কয়েক বছর হলো বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে দেখা নেই ‘মার্ডার’-অভিনেত্রীর। এ সময় দেশ ছেড়ে পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে। নাম লেখান হলিউডে। তবে সেখানেও ব্যর্থ। যে দু-একটা ছবি করেছেন তা ফ্লপের কাতারে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে কেন মুম্বাই ছেড়ে মার্কিন মুলুকে পাড়ি জামানো তার জবাব দিয়েছেন ইমরান হাসমির ‘হট’ নায়িকা মল্লিকা শেরাওয়াত।


 
এমনিতেই মুখ চলে বেশি। তার ওপর আবার সব ব্যাপারে নিজের মতামত দেয়ার চেষ্টা। এই দুই কারণেই নাকি বলিউড থেকে দূরে সরে গিয়েছিলেন এই নায়িকা। দেশে ফিরে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। একতা কাপুরের প্রযোজনায় একটি হরর-কমেডি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করতে চলেছেন তিনি। সেই ছবি সংক্রান্ত এক সাক্ষাৎকারেই তিনি বললেন, বলিউডে মেয়েদের অধিকার আর সমস্যা নিয়ে কথা বলতে গিয়েই অভিনেতাদের অপ্রিয় হয়ে যান তিনি। যেকোনো বিষয়ে নিজের নাক গলানোর কারণে অনেক ছবিতেই তাকে সরিয়ে জায়গা করে দেয়া হয় নায়কের প্রেমিকাদের। এমনকি বহু নায়িকারও রোষানলে পড়তে হয়েছিল তাকে। মল্লিকা জানিয়েছেন, সে সময়ে এখনকার মতো সোশ্যাল মিডিয়ার এতো রমরমা ছিল না। নিজেদের কথা জানানোর জোর ছিল না। তবে এখন পরিস্থিতি অনেকটাই আলাদা। তবে একটা সময় ক্ষোভ থাকলেও এখন আর সেসবে পাত্তা দেন না মল্লিকা।


প্রথম ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে পা রাখছেন মল্লিকা। নেপথ্যে একতা কাপুর। সৌজন্যে অল্টবালাজি প্রযোজিত হরর কমেডি ‘বুউউউ…সবকি ফাটেগি’। ওই ওয়েব সিরিজের কাজেই মুম্বাইয়ে এসেছিলেন অভিনেত্রী। সেখানেই তাকে প্রশ্ন করা হয়-‘মার্ডার’ ব্লক বাস্টার হিট হওয়ার পরও কেন সেভাবে তাকে বলিউডের ছবিতে পাওয়া গেল না। জবাবে ওই কথা বলেন নায়িকা। বছর ৪২-এর অভিনেত্রী বলেন, ‘বলিউডের মনোভাব অবশ্য এখনো খুব একটা বদলায়নি। এসবের পরিবর্তন ঘটাতে এখনো যথেষ্ট ঘাটতি রয়েছে। বছরে দেড় হাজার ছবি করলেও ছক ভাঙা ছবি হয় হাতে গোনা কয়েকটা।’

বলিউডে মেয়েদের সাফল্য প্রসঙ্গে এই নায়িকা বলেন, ‘আমার এই কাজটি নেয়ার একটা বড় কারণ প্রযোজক একতা কাপুর। ওর সাফল্য দেখে আমার ভালো লাগে।’