শেখ রাসেলের প্রতি শ্রদ্ধা

যুবলীগের বয়সসীমার আলোচনা রোববারের বৈঠকে: কাদের

যুবলীগের বয়সসীমার আলোচনা রোববারের বৈঠকে: কাদের

স্টাফ রিপোর্টার : বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের ৫৬তম জন্মদিন উপলক্ষে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর বনানী করস্থানে রাসেলের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানো হয়। গতকাল শুক্রবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের জš§দিন উপলক্ষে বনানীতে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যুবলীগের বয়সসীমা নিয়ে সংগঠনটির শীর্ষ নেতাদের নিয়ে গণভবনে রোববার অনুষ্ঠিতব্য আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে আলোচনা হবে। প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে ৪০ বছর বয়সীরা যুবলীগের নেতৃত্ব দিতে পারবেন এমন বিধান ছিল গঠনতন্ত্রে। কিন্তু ১৯৭৮ সালের দ্বিতীয় কংগ্রেসের পর এই বিধানটি বিলুপ্ত করা হয়। ৬ষ্ঠ জাতীয় কংগ্রেসে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন ৬৪ বছর বয়সী ওমর ফারুক চৌধুরী, বর্তমানে তার বয়স ৭১।

 এছাড়াও সংগঠনটির সিনিয়র নেতাদের বেশীর ভাগেরই বয়স ৬০ পার হয়েছে। এই অবস্থায় যুবনেতাদের বয়স কত হবে, তা নিয়ে আলোচনা চলছে। আগামী ২৩ নভেম্বর যুবলীগের সপ্তম জাতীয় কংগ্রেস সামনে রেখে নির্দেশনা নিতে রোববার শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে বসছে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদের নেতৃত্বে প্রেসিডিয়ামের সদস্যরা। এ বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কোন বয়স পর্যন্ত যুবলীগ করা যাবে, সেসব আলোচনা রোববারের মিটিংয়েই করা হবে। এ বৈঠকের সংগঠনটির চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী ও প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের উপস্থিত না হওয়া নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, যুবলীগ নিয়ে রবিবার গণভবনে মিটিং ডেকেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চেয়ারম্যানকে সেখানে ডাকা হয়নি। সেখানে কাকে ডাকবেন আর কাকে ডাকবেন না, সেটা প্রধানমন্ত্রীর বিষয়। এটা পার্টি অফিসে ডাকা হলে আমি বলতে পারতাম। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা যুবলীগকে গণভবনে ডেকেছেন। সেখান থেকে যাদের বলা হয়েছে, তারাই মিটিংয়ে যাবেন। বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন,  কথায়-কথায় অভিযোগ করা বিএনপির রোগে পরিণত হয়েছে। অভিযোগ আর নালিশ ছাড়া তাদের ( বিএনপি) কিছু করার নেই।  বিরোধী দল হিসেবে দায়িত্বজ্ঞানহীন সব কর্মকাণ্ডই তারা করেছে।

বিএনপি গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতিতে আসুক আমরা সেটা আশা করছি৷ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির আন্দোলন ও নির্বাচনে ব্যর্থ। তারা এখন শুধু ইস্যূ খুঁজে বেড়াচ্ছে।  বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডেও ইস্যূ খোঁজার চেষ্টা করেছিলো। তাদের ইস্যূ খুঁজে পাওয়ার রাজনীতিতে জনগণ সাড়া দেবে না। আমার চাই তারা ( বিএনপি) গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতিতে ফিরে আসুক। শেখ রাসেলের হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, মানব সভ্যতার ইতিহাসে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডে কোনো নারী বা অবলা শিশুকে টার্গেট করা হয় না। কিন্তু, বাংলাদেশে সব রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড ও কারবালার নৃশংস হত্যাকাণ্ডে নারী-শিশু হত্যা করা হয়েছে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার সময় ১০ বছরের অবুঝ শিশু রাসেলকেও হত্যা করা হয়। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন মতিয়া চৌধুরী, মাহবুবউল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, হাছান মাহমুদ, এনামুল হক শামীম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবদুস সোবহান গোলাপ, দেলোয়ার হোসেন, বিপ্লব বড়–য়াসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা। পরে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দণি আওয়ামী লীগ, আওয়ামী যুবলীগ, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, তাঁতিলীগ, শ্রমিকলীগ, ছাত্রলীগ,মহিলা আওয়ামী লীগ, মহিলা শ্রমিক লীগ, কৃষকলীগসহ বিভিন্ন সামজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন শহীদ শেখ রাসেলের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।

 পরে বনানীর কবরস্থান মসজিদে শেখ রাসেলসহ ১৫ আগস্টের শহীদদের স্মরণে মিলাদ-মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া ও মিলাদে আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহানগর উত্তর-দণি আওয়ামী লীগ, মহানগর উত্তর দণি ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী ও ভাতৃপ্রতিম সংগঠনের প থেকে শহীদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। দোয়া-মাহফিলেও অংশ নেন নেতাকর্মীরা। পাশাপাশি আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতপ্রতিম এবং বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন দিনটি উপলে নানা কর্মসূচি পালন করে। এদিকে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৬তম জন্মদিনে গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টায় বনানী কবরস্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানিয়েছে ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন, ৩৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার মঈনুর রহমান জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেনসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। একইসাথে শেখ রাসেলের ৫৬তম জন্মদিনে বনানী কবরস্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন বঙ্গবন্ধু জয়বাংলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্য সুজাউল করীম চৌধুরী বাবুল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ইউনুস আকবর, আবদুল মজিদ ও মো. রেজাউল করীম সাগর প্রমুখ।