মুম্বাইয়ে ভবনধসে নিহত বেড়ে ১৩

মুম্বাইয়ে ভবনধসে নিহত বেড়ে ১৩

ভারতের মুম্বাই শহরের ডংরি এলাকায় চারতলাবিশিষ্ট একটি বহুতল ভবন ধসে এখন পর্যন্ত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনও অনেকেই নিখোঁজ রয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে, ধ্বংসস্তূপের নিচে এখনও কমপক্ষে ৪০ জন আটকা পড়ে আছেন। উদ্ধারকারী দল দিনরাত কাজ করে ধ্বংসস্তূপ সরানোর কাজ করে চলেছে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১১টার দিকে প্রাচীন ওই বাড়িটি ভেঙে পড়ে। টানা কয়েকদিন ধরে বৃষ্টিতে বাড়িটির ভিত আলগা হয়ে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


তবে ২০১৭ সালে বাড়িটি খালি করে দেওয়ার নোটিশ দিয়েছিল মুম্বাই পৌরসভা। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও জানিয়েছেন যে, ওই বহুতল ভবনের বাসিন্দারা পৌরসভায় দেখা করে সেটি পুনর্নির্মাণের আবেদন জানিয়েছিলেন।

পুরো বাড়িটা কাঁপছে বুঝতে পেরেই তিন মাসের মেয়ে ও দেড় বছরের ছেলেকে কোলে নিয়ে দৌড়ে নিচে নেমেছিলেন নিসার শেখ। কিন্তু বাবা ও স্ত্রী রয়ে গিয়েছিলেন ভেতরেই। তাদের আর বাঁচানো যায়নি। শেষপর্যন্ত চোখের সামনেই ভেঙে পড়ে বহুতল ওই ভবনটি।

প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ঘিঞ্জি এলাকা হওয়ায় উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে। দমকলের ইঞ্জিন, অ্যাম্বুলেন্স অনেকটাই দূরে রাখা হয় ঘটনাস্থল থেকে। উদ্ধারকাজে হাত লাগিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

তারা লাইন করে দাঁড়িয়ে হাতে-হাতে ধ্বংসাবশেষ সরিয়ে উদ্ধারকাজে সহায়তা করেছেন। এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, প্রচণ্ড শব্দে কেঁপে ওঠে পুরো এলাকা। ভূমিকম্প হচ্ছে বলে মনে হয়েছে। সবাই চিৎকার করছিল।