মুন্সীগঞ্জে পাওনা টাকার বিরোধে মাদ্রাসা শিক্ষক খুন

মুন্সীগঞ্জে পাওনা টাকার বিরোধে মাদ্রাসা শিক্ষক খুন

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলায় পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধের জেরে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে অভিযোগ উঠেছে তার চাচাত ভাইয়ের বিরুদ্ধে।

হাতিমারা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই জিল্লুর রহমান জানান, উপজেলার আজিমপুরা এলাকায় মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে এ ঘটনায় ৫৫ বছর বয়সী ক্বারী মো.আওলাদ হোসেনের মৃত্যুর পর তার চাচাত ভাই তাইজেল শেখকে আটক করেছে পুলিশ।

আওলাদ স্থানীয় চুরাইন আনোয়ারুল উলম রহমানিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি স্থানীয় একটি ফার্মেসীতে কাজ করতেন বলে পুলিশ জানায়।

তাইজুলের (৪৫) বাড়িও ওই আজিমপুরা এলাকায়।

আওলাদের স্ত্রী সাহিদা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, তার স্বামী রাতের খাবার খেয়ে ব্যবসার হিসাবের কাজ করছিলেন। এ সময় মোবাইলে তাইজুলের ফোন পেয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যান তিনি। এরপর দীর্ঘসময় ফিরে না আসায় আওলাদের মোবাইলে ফোন করলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

“এরপর তাইজুলের বাড়িতে গিয়ে তাকে বাড়ির পাশের পুকুরে রক্ত পরিষ্কার করতে দেখে আমি চিৎকার করলে লোকজন ছুটে আসে। এ সময় তাইজুল পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে গ্রামবাসী একটি হাতুড়িসহ তাকে আটক পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।”

তাইজুল পুলিশের কাছে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন জানিয়ে এসআই জিল্লুর বলেন, আওয়ালের কাছে তাইজুল ৮০ হাজার টাকা পেতেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়।

“এর জেরে মঙ্গলবার রাতে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হলে এক পর্যায়ে তাইজুল হাতুড়ি দিয়ে আওয়ালের মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।”

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের পাঠানো হয়েছে।