মুক্তির পর সালমানের বাসায় ক্যাটরিনা

মুক্তির পর সালমানের বাসায় ক্যাটরিনা

বিনোদন ডেস্ক : কৃষ্ণসার হরিণ শিকারের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে সালমানকে পাঁচ বছরের সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠান যোধপুর আদালত। দুই রাত জেলে থাকার পর ৭ এপ্রিল শনিবার ৫০ হাজার রুপি মুচলেকার বিনিময়ে সালমানকে জামিন দেওয়া হয়। জামিন ঘোষণার পর রাত ৮টার দিকে কারাগার থেকে মুক্তি পান সালমান। সালমানের মুক্তির খবরে মুম্বাইয়ের গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের সামনে ভিড় জমাতে শুরু করেন ভক্তরা। এ ছাড়া সালমানের সঙ্গে দেখা করতে হাজির হন ক্যাটরিনাসহ অন্য বলিউড তারকারা। ক্যাটরিনা ছাড়াও সালমানের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন সোনাক্ষি সিনহা, রমেশ তৌরানি, স্নেহা উলাল, পুনম সিনহা, ডেইজি শাহ ও অমৃতা আরোরা।
 
সালমানের সঙ্গে দেখা করে ছবিও তুলতে দেখা যায় সোনাক্ষি সিনহাকে। হ্যাশট্যাগ ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’ দিয়ে সে ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার দেন সোনাক্ষি। যার ক্যাপশনে তিনি লিখেন, ‘প্রেরণা এবং প্রেরণার ক্ষেত্র। আমার সুরক্ষাকবচ। আমরা সবাই একসঙ্গে আছি, তোমাকে ফিরে পেয়েছি।’ ১৯৯৮ সালের ১ ও ২ অক্টোবর যোধপুরে ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’ সিনেমার শুটিংয়ের মাঝে দুটি আলাদা জায়গায় দুটি কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা করেছিলেন সালমান। রাজস্থানের কঙ্কানি এলাকায় গ্রামবাসী জানান, গুলির শব্দ শুনে তারা সালমানের জিপসি গাড়িটিকে ধাওয়া করেছিলেন। সেই সময় মামলার অন্য অভিযুক্ত সাইফ আলি খান, টাবু, নিলম ও সোনালি বেন্দ্রে গাড়িতেই ছিলেন। আর গাড়িটির চালকের আসনে ছিলেন সালমান। প্রবল গতিতে গাড়ি ছুটিয়ে পালিয়ে যান তারা।