মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড চালুর সিদ্ধান্ত নিলো ‘বিপিএ’

মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড চালুর সিদ্ধান্ত নিলো ‘বিপিএ’

বিনোদন প্রতিবেদক :  টেলিভিশনে ‘মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড’ চালুুু করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ব্রডকাস্ট প্রডিউসার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএ) এর বার্ষিক সাধারণ সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার প্রায় ৪৯ বছর হতে চলেছে। দীর্ঘ এ সময়ে বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেলের ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন হয়েছে। একসময় ছিল একটি মাত্র সরকারি টিভি বিটিভি (বাংলাদেশ টেলিভিশন)। এখন ৩৩ টি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল হয়েছে। এসব চ্যানেলে প্রচারিত নিজস্ব প্রযোজনাগুলোকে এবং সেগুলোর দায়িত্বে নিয়োজিত প্রযোজকদের স্বীকৃতি প্রদানের লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে আয়োজকরা জানান। এর পাশাপাশি এই আয়োজনের মাধ্যমে পথিকৃৎ প্রযোজকসহ আপন আলোয় আলোকিত মিডিয়া ব্যক্তিত্বদেরকেও সম্মাননা প্রদান করা হবে।

 শিগগিরই টেলিভিশন প্রযোজনা পেশার জন্য অতি জরুরি মহৎ এই কাজটি শুরু করা হবে। সংগঠনের সভাপতি শামসুদ্দিন হায়দার ডালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাধারণ সভায় উপস্থিত ছিলেন সংঠনের সহ-সভাপতি আকা রেজা গালিব, সহ-সভাপতি কাজী নাজমুল আলম তাপশ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী হায়দার, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শিহাব উদ্দিন সুমন, অর্থ সম্পাদক স্বীকৃতি প্রসাদ বড়ুয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন, সদস্য অনন্যা রুমা, নাহিন শফিক প্রমুখ। টেলিভিশন প্রযোজকদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করণ, প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদান ও চাকরির ঝুঁকি কমানোর জন্য বিপিএ কাজ করবে বলে সভায় জানানো হয়। বিপিএ সদস্যদের প্রশিক্ষণ প্রদান কার্যক্রম শিগগির শুরু করা হবে বলেও জানানো হয়। এসব কার্যক্রম সুন্দর ও গতিশীল ভাবে পরিচালনার জন্য মোহম্মদ আলী হায়দারকে আহবায়ক করে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি ওয়ার্কিং কমিটি করা হয়। এই কমিটি অতি তাড়াতাড়ি তাদের কার্যক্রম শুরু করবে। বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত বিপিএ’র ১ম বার্ষিক সাধারণ সভায় আসা সদস্যরা বাংলাদেশের টেলিভিশন প্রডাশনের মান উন্নয়নের অঙ্গীকার করেন। ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ সমাজসেবা অধিদফতর, ঢাকা জেলা সমাজসেবা কার্যালয় ব্রডকাস্ট প্রডিউসার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএ) নামে ছাড়পত্র প্রদান করে।