মার্কা পেয়ে প্রচারে প্রার্থীরা

মার্কা পেয়ে প্রচারে প্রার্থীরা

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। সোমবার (১০ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশন এবং জেলা প্রশাসকরা তাদের কার্যালয়ে প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেন। মূলত প্রতীক পাওয়ার পর থেকেই প্রচারণা শুরু করেন প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা।

এবারের নির্বাচনে নিবন্ধিত ৩৯টি দলই অংশ নিয়েছে। এছাড়া দুই শতাধিক স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। নির্বাচন কমিশন (ইসি) সংসদ নির্বাচনের জন্য ৬৪টি প্রতীক সংরক্ষণ করেছে।

এরমধ্যে ৩৯টি নিবন্ধিত দলকে নিজস্ব এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীদের অবশিষ্ট প্রতীকগুলো থেকে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী, প্রতীক পেয়েই প্রার্থীরা নির্বাচনী প্রচারণায় আনুষ্ঠানিকভাবে নামতে পারেন।

দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, প্রতীক পেয়েই নিজ নিজ এলাকায় আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেন প্রার্থীরা। অনেকে পোস্টারও টানানো শুরু করেছেন। আচরণ বিধি ভঙ্গ করেও অনেককে মিছিল করতে দেখা গেছে।

ইসি সূত্র বলছে, এবার ১৯ দিন প্রচার কাজ চালানোর জন্য সময় পাচ্ছেন প্রার্থী-সমর্থকরা। কেননা, প্রচার কাজ বন্ধ করতে হবে ২৮ ডিসেম্বর মধ্য রাত ১২টায়।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বিএনপি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও জাতীয় পার্টি সবচেয়ে বেশি প্রার্থী দিয়েছে। সব মিলিয়ে দেড় হাজারের মতো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রয়েছে নির্বাচনী মাঠে।