কমলাপুর জিআরপি থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর

মাদ্রাসা ছাত্রী আসমা হত্যার প্রধান আসামী বাঁধন পঞ্চগড়ে গ্রেফতার

মাদ্রাসা ছাত্রী আসমা হত্যার প্রধান  আসামী বাঁধন পঞ্চগড়ে গ্রেফতার

পঞ্চগড় প্রতিনিধি : রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে ট্রেনের পরিত্যক্ত বগি থেকে উদ্ধার হওয়া মাদ্রাসা ছাত্রী আসমা আক্তারকে (১৭) ধর্ষণের পর হত্যা মামলার সন্দেহভাজন প্রধান আসামী মারুফ হাসান বাঁধনকে (২০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার রাতে বাঁধনকে গ্রেফতারের দাবি পুলিশের। তবে কোন স্থান থেকে তাকে আটক করা হয়েছে এ নিয়ে বিস্তারিত কিছু পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়নি। বাঁধনের পরিবারের পক্ষ থেকেই বাধনকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে-স্থানীয় একটি সূত্র এমনটা দাবি করলেও বাধনের বাবা-মাসহ পরিবারের কাউকে না পাওয়ায় বিষয়টি নিয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। গতকাল শুক্রবার বিকেলে পঞ্চগড় সদর উপজেলার হেলিপ্যাড এলাকার সীতাগ্রামস্থ বাধনের বাড়িতে গেলে তাদের বাড়ির প্রধান ফটক তালাবন্ধ পাওয়া যায়। বাধনের বাবা হানিফ ইসলাম ভুট্টোর মুঠোফোনে কথা বলার চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

এদিকে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় পঞ্চগড় সদর থানা থেকে কড়া নিরাপত্তায় মারুফ হাসান বাধনকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও কমলাপুর জিআরপি থানার উপ পরিদর্শক মো. আলী আকবর পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এসময় পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নাঈমুল হাছান,  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুদর্শন কুমার রায়, পঞ্চগড় সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আবু আক্কাছ আহমদ উপস্থিত ছিলেন। মারুফ হাসান বাধন পঞ্চগড় সদর উপজেলার সদর ইউনিয়নের সীতাগ্রামের হানিফ ইসলাম ভুট্রোর ছেলে। সে অস্টম শ্রেণি পর্যন্ত আসমা আক্তারের সঙ্গে খানবাহাদুর মোখলেছুর রহমান আলিম মাদ্রাসায় পরে ঠাকুরগাঁওয়ের খোশবাজার কামিল মাদ্রাসা থেকে গত দাখিল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে পঞ্চগড় টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট (বিএমএ কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হয়।