মা হিন্দু, বাবা খ্রিস্টান, পালকবাবা মুসলিম; আমি কি ভারতীয়?

মা হিন্দু, বাবা খ্রিস্টান, পালকবাবা মুসলিম; আমি কি ভারতীয়?

বলিউড তারকা দিয়া মির্জা

নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে ভারতজুড়ে ব্যাপক আন্দোলন চলছে। রাজধানী দিল্লিসহ বেশ কয়েকটি শহর কার্যত অচল হয়ে পড়েছে। মোদি সরকার ১৪৪ ধারা জারি করে গণহারে গ্রেফতার করছে। 


এই আন্দোলনে সরব হয়ে উঠেছে বলিউডও। সেখানকার অনেক তারকা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। যারা রাস্তায় নামতে পারেননি, তারা সামাজিক মাধ্যমে সরব আছেন। 

রাস্তায় নামতে না পারাদের একজন হলেন দিয়া মির্জা। তার একটি টুইট এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে। তার কারণ তিনি লিখেছেন, আমার মা হিন্দু, বাবা খ্রিস্টান আর পালক বাবা মুসলিম। সরকারি সব কাগজপত্রে আমার ধর্মের ঘর ফাঁকা আছে। তাহলে আমি কি ভারতীয়? 

দিয়া মির্জা বৃহস্পতিবার এক টুইটে লিখেছেন, অসুস্থতার কারণে রাস্তায় নামতে পারিনি। কিন্তু আমি প্রত্যেক শান্তিপূর্ণ বিক্ষোকারীর সঙ্গে আছি।

আসামে গায়ক পাপন ও জুবিন গর্গ থেকে শুরু করে মুম্বাইতে ফারহান আখতার ও পরিচালক মহেশ ভাট রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করছেন। 

গত বৃহস্পতিবার নাগরিকত্ব বিল পাস করার পর রাষ্ট্রপতি তাতে সই করেছেন এবং তা আইনে পরিণত হয়ে গেছে। 

তার আগে থেকেই এই আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করে আসামের নাগরিকরা। এরপর তা ছড়িয়ে পড়ে ত্রিপুরা, কেরালা, বেঙ্গালুরু, পশ্চিমবঙ্গ থেকে দিল্লি পর্যন্ত। 

দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ শুরু করলে পুলিশ তাদের ওপর নির্যাতন চালায়। তাদের আবাসিক হলে গিয়ে হামলা করে। এরপর ফুঁসে ওঠে ভারতের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। 

বৃহস্পতিবার ও দিল্লিসহ দশটি শহরে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। মেট্রো স্টেশন, বাস, দোকানপাট সব ছিল বন্ধ। কোনো কোনো জায়গায় ১৪৪ ধারা জারি করে স্থানীয় প্রশাসন। কিন্তু ১৪৪ ধারা বেঙে রাস্তায় নেমে আসে প্রতিবাদী জনতা। 

ভারতের গণমাধ্যম জানাচ্ছে, আজ কয়েক হাজার বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।