মঠবাড়িয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

মঠবাড়িয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় স্ত্রী হত্যার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় কামাল হাওলাদার (৩৫) নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদ- দেওয়া হয়েছে।  বৃহস্পতিবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এস এম জিল্লুর রহমান এ রায় দেন। দন্ডপ্রাপ্ত কামাল উপজেলার মানিকখালী গ্রামের মৃত আব্দুল মালেক হাওলাদারের ছেলে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী সূত্রে জানা যায়, ২০০৪ সালে উপজেলার কবুতরখালী গ্রামের আব্দুর রহমান ফরাজীর মেয়ে সীমা আক্তারের সঙ্গে কামালের বিয়ে হয়। পরের বছর ২৪ জানুয়ারি বিকেলে স্বামীর বাড়িতে সীমার গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় প্রতিবেশিরা দেখতে পায়। খবর পেয়ে তার বাবা স্থানীয় থানায় জানালে পরদিন পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়। পরে ময়নাতদন্তে আঘাতজনিত কারণে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানা যায়। এরপর মেয়েটির বাবা গোপনে জানতে পারে পারিবারিক কলহে মায়ের প্ররোচনায় কামাল সীমাকে মারধর করতো। ঘটনার দিন সকালে কামাল সীমাকে মারধর করে। এ ঘটনায় ২০০৫ সালের ৮ জুন সীমার বাবা বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় কামাল ও তার মা রওশনার বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) রথীন্দ্রনাথ ওই বছরের ৩১ ডিসেম্বর আদালতে কামালের বিরুদ্ধে আদালতে চাজর্শিট দাখিল করেন। মামলায় ১৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিচারক কামালের উপস্থিতিতে এ রায় দেন।