ভয়াবহ বায়ুদূষণ

ভয়াবহ বায়ুদূষণ

বিশ্বের যে সব দেশের বায়ু ভয়াবহ দূষণের শিকার বাংলাদেশ তার মধ্যে একটি। নদ-নদী ও সবুজের সমারোহে ভরা দেশের এই বৈসাদৃশ্য নিঃসন্দেহে দুর্ভাগ্যজনক। ঢাকার বাতাসে এখন মারাত্মক বিষ। প্রকাশ, বায়ু দূষণের শীর্ষে রয়েছে ভারতের দিল্লি, তারপরই আমাদের এই বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালের মধ্যে বিশ্বে বায়ু দূষণ সবচেয়ে বেশি বেড়েছে ভারত ও বাংলাদেশ। এ দূষণে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান হেলথ ইফেক্টস ইনষ্টিটিউট এবং ইনষ্টিটিউট ফর হেলথ মেট্রিকস অ্যান্ড ইভালুয়েশনের যৌথ গবেষণার ফলশ্রুতিতে গত বছর বৈশ্বিক বায়ু পরিস্থিতি ২০১৭ শীর্ষক প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া যায়। বিজ্ঞানীদের মতে, ধুলিকণার মাত্রা প্রতি ঘন মিটারে দিনে গড়ে হওয়া উচিত ১০০ মাইক্রোগ্রাম।

কিন্তু বায়ুদূষণের কবলে পড়া দেশগুলিতে এই মাত্রা অত্যধিক। কোথাও কোথাও ৩ গুণ বা ৪ গুণ বা এর চেয়েও বেশি। কৃত্রিম উপগ্রহ থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বায়ু দূষণের পরিমাণ পরিমাপ করে প্রতিবেদনটি তৈরী করা হয়েছে। রাজধানী ঢাকাসহ বাংলাদেশে বায়ু দূষণে সবচেয়ে ক্ষতিকর ভূমিকা রাখছে ইটভাটা, কলকারখানা ও যানবাহনের ধোঁয়া। শুষ্ক মৌসুমে এ ধোঁয়া ভয়াবহভাবে বায়ু দূষণের কারণ ঘটায়। বায়ুদূষণ রাজধানীর দেড়কোটি মানুষের অস্তিত্বের জন্য হুমকি সৃষ্টি করছে। নিজেদের স্বার্থেই এ বিপদ মোকাবিলায় ত্বরিত পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।