ভোলায় সভা-সমাবেশে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা

ভোলায় সভা-সমাবেশে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা

আইন-শৃঙ্খলার স্বার্থে ভোলায় সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে জেলা প্রশাসন। সোমবার (২১ অক্টোবর) সকাল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে।

ভোলার জেলা প্রশাসক (ডিসি) মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেন, বর্তমান পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। মোতায়েন রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), পুলিশ, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), আমর্ড পুলিশ। কাউকে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

এদিকে, বেলা ১১টা থেকে অবস্থান নিয়েছে ‘সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদ’র নেতারা। তারা প্রেসক্লাব চত্বরে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করছে। সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

গত শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) রাতে বিপ্লব চন্দ্র বৈদ্য (২৫) নামে এক যুবক নিজের ফেসবুক আইডি ‘Biplob Chandra Shuvo’ হ্যাক হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে বোরহানউদ্দিন থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। জিডি করার সময় থানায় অবস্থানকালেই বিপ্লবের নম্বরে একটি কল আসে এবং তার কাছে চাঁদা দাবি করা হয়।

বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে ওসিকে জানানো হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়। প্রযুক্তির সহায়তায় সেদিন রাতেই বিপ্লবের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক ও চাঁদা দাবির দায়ে শরীফ এবং ইমন নামে দুই যুবককে আটক করা হয়।

কিন্তু ওই আইডি থেকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারী কুৎসা রটনার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সমাবেশ ডাকে ‘তৌহিদি জনতা’। এতে বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে চারজন নিহত হন।